ভর্তি আবেদনের যোগ্যতা শিথিল করলো চবি

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: অবশেষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির আবেদনের যোগ্যতা শিথিল করেছে কর্তৃপক্ষ। এবার স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের সাথে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএ পয়েন্ট যোগ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। চলতি বছর চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি’র ফলাফল বিপর্যয়ের কারণেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পার্থ প্রতীম বিশ্বাসের প্রতিবেদন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার ৭টি অনুষদের ৯টি ইউনিটে ৩ হাজার ৩৫০টি আসনে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া বিভিন্ন কোটায় ভর্তির সুযোগ পাবে আরও ৫০০ শিক্ষার্থী। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে এবার পাশের হার ও জিপিএ-৫ পাওয়ার সংখ্যা কম। তাই ভর্তির ক্ষেত্রে এখানকার শিক্ষার্থীরা যাতে বঞ্চিত না হয় সে জন্য ভর্তির আবেদনের যোগ্যতা শিথিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সচিব এস এম আকবর হোসাইন বলেন, ১০০ নম্বরের পরীক্ষার প্রাপ্ত নম্বরের সঙ্গে এসএসসি’র নম্বরের ৪০ শতাংশ এবং এইচএসসি’র নম্বরের ৬০ শতাংশ যোগ করে মোট ১২০ নম্বরে ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী বলেন, বেশি শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আগের গ্রেডিং পদ্ধতির মান ৭ দশমিক ৫ থেকে কমিয়ে সাতে নিয়ে আসা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফ জানান, নতুন অনুষদ না হলেও শিক্ষার্থীদের আশা-আকাঙ্ক্ষার কথা মাথায় রেখে এবার ১০০টি সাধারণ আসন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের জন্য ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ফরম সংগ্রহ করে জমা দেয়া যাবে। ১৬ নভেম্বর থেকে শুরু হবে ভর্তি পরীক্ষা।