পতন ও হার শুরু হলে নতুন সেনাপতি দিয়ে ঠেকানো যাবে না

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসিচব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্যে বলেছেন, বিদেশে থেকে নতুন সেনাপতি নিয়ে আসা হয়েছে। পতন ও হার শুরু হলে নতুন সেনাপতি দিয়ে ঠেকানো যাবে না। দুর্গে যখন পতনের সুর বেজে ওঠে তখন নতুন সেনাপতিও সে পতন রোধ করতে পারে না। এ দেশের মানুষের সঙ্গে যদি সেনাপতির সম্পর্ক না থাকে তার কথায় কাজ হবে না।
সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে নাগরিক অধিকার রক্ষা কমিটি আয়োজিত আমার দেশ ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ‘অন্যায় রিমান্ড ও নাগরিক অধিকার’ শীর্ষক আলোচনায় সভায় তিনি বক্তব্য রাখেন। বিএনপি মহাসচিব প্রধানমন্ত্রী পূত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে উদ্দেশ্য করেই এসব কথা বলেন। পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের পরাজয়ের পর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী পূত্র সজীব ওয়াজেদ জয় দেশে এসেছেন। আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতির জন্য তিনি দেশেই থাকবেন। সম্প্রতি জয় রংপুরের পীরগঞ্জে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখেন।
মাহমুদুর রহমান প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, মাহমুদুর রহমান কোন রাজনৈতিক দলের সদস্য নন, তিনি বাংলাদশের স্বাধীনতা স্বার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্র পাহারায় নিযুক্ত অকুতোভয় সৈনিক। ভয় ও হতাশ হওয়ার কিছু নেই আমাদেরকে নতুন শক্তি সঞ্চয় করে এই ফ্যাসিবাদী সরকারের বিরুদ্ধে মাঠে নামতে হবে।
একই অনুষ্ঠানে প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল-হক বলেন, ‘আমি ৫৪ বছর ধরে আইনের প্রাক্টিস করছি এখনও আমি বুঝলাম না কোন আইনে কেন মাহমুদুর রহমানকে জেলে আটকে রাখা হয়েছে। তার মুক্তি ও নির্যাতন বন্ধের জন্য আমার যা করার তাই করব।
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ফরহাদ মজহারের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (একাংশ) সভাপতি রহুল আমীন গাজী, আমার দেশের নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শওকত মাহমুদ, বিশিষ্ট চলচিত্রকার চাষী নজরুল ইসলাম, শিক্ষক ঐক্য পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া প্রমুখ।