বার্তাবাংলা ডেস্ক »

পেছনে রেলসেতু হার্ডিঞ্জ ব্রিজ, সামনে সড়কসেতু লালন শাহ ব্রিজ আর মাঝখানে পাবনা জেলার উল্লেখযোগ্য স্থাপনা। মধ্যবর্তী এমনই একটি জায়গায় মঞ্চ নির্মাণ করে ধারণ করা হয়েছে এবারের ‘ইত্যাদি’।

পদ্মার তীরে হার্ডিঞ্জ ব্রিজের নিচে ইত্যাদি অনুষ্ঠান ধারণের। অভিজ্ঞতা কেমন ছিল? জানতে চাইলে এর পরিচালক এবং উপস্থাপক হানিফ সংকেত বলেন, ‘যেহেতু ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, পর্যটন ও দর্শনীয় স্থানগুলোতে গিয়ে ইত্যাদি ধারণ করা হয়, তাই স্থান নির্বাচনের সময় আমরা খোঁজখবর নিই, ওই সময়ের আবহাওয়া কেমন থাকবে। পাবনায়ও আমরা দেড় মাস আগেই আবহাওয়া অফিস থেকে খোঁজ নিয়ে জেনেছি, মধ্য সেপ্টেম্বরে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা কম। আমরা সেই তথ্যমতেই স্থান নির্ধারণ, সেট নির্মাণ করি। কিন্তু শুটিংয়ের আগের রাতেই শুরু হয় বৃষ্টি। অনুষ্ঠান ধারণের দিন সকাল থেকেও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া। ফলে নদীর তীরের এই মাঠটি হয়ে ওঠে কর্দমাক্ত।’

হানিফ সংকেত বলেন, ‘অনুষ্ঠান করতে পারব কি না, যখন এই অনিশ্চয়তায় ভুগছি, তখন দেখি চারদিক থেকে বৃষ্টি, কাদা মাড়িয়ে ছাতা মাথায় হাজার হাজার দর্শক অনুষ্ঠানস্থলে আসতে শুরু করেছে। শেষ পর্যন্ত এই বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেই আমরা বিকেল থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত শুটিং সম্পন্ন করি।’

এই পর্বে থাকছে পাবনায় জন্মগ্রহণকারী মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের ওপর একটি তথ্যসমৃদ্ধ প্রতিবেদন। সুচিত্রা সেনের স্কুলবান্ধবী ৮৬ বছর বয়সী সারা আহমেদ শেফালি থাকছেন এই পর্বে। রয়েছে প্রচারবিমুখ কৃষি অন্তঃপ্রাণ বাদশার সাক্ষাত্কার। রয়েছে ঐতিহ্যবাহী ‘পাবনা মানসিক হাসপাতাল’-এর ওপর একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন। এ ছাড়া রয়েছে বিদেশি প্রতিবেদন। এবারের পর্বে গান রয়েছে দুটি। একটি গান গেয়েছেন পাবনার সন্তান বাপ্পা মজুমদার ও তাঁর ব্যান্ড দলছুট। দ্বিতীয় গানটি গেয়েছেন পাবনার আরেক সন্তান অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

এবারও রয়েছে দর্শক পর্ব। নির্বাচিত দর্শকদের সঙ্গে দ্বিতীয় পর্বে অংশগ্রহণ করেছেন পাবনার আরও দুজন কৃতী নাট্যদম্পতি বৃন্দাবন দাস ও শাহনাজ খুশী। রয়েছে বেশ কয়েকটি নাট্যাংশ।

ইত্যাদির এই পর্ব প্রচারিত হবে আজ শুক্রবার রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »