রোনালদিনহোর কাছে ঋণী মেসি

বার্তাবাংলা ডেস্ক:এখন মেসিকে ঘিরেই সাজানো হয় বার্সেলোনার রণকৌশল। কিন্তু নয় বছর আগে ১৭ বছর বয়সী মেসি কিছুটা জড়সড় হয়েই ঢুকেছিলেন বার্সেলোনার সাজঘরে। হয়তো বিশ্বমানের সব খেলোয়াড়ের পাশে ঠিক মানিয়ে নিতে পারছিলেন না নিজেকে। ক্যারিয়ার শুরুর কঠিন সেই সময়টায় মেসি পাশে পেয়েছিলেন রোনালদিনহোকে। ব্রাজিলিয়ান এই তারকাই মেসিকে সাহায্য করেছিলেন মানিয়ে নিতে। তাই এত দিন পরও ব্রাজিলিয়ান এই তারকার কাছে কৃতজ্ঞতার শেষ নেই এ সময়ের সেরা ফুটবলারের। এখনো তিনি ঋণীই হয়ে আছেন রোনালদিনহোর কাছে।
২০০৩ সালে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন থেকে বার্সেলোনায় নাম লিখিয়েছিলেন রোনালদিনহো। ঠিক এক বছর পরেই বার্সেলোনার মূল দলে ডাক পান মেসি। সে সময় রোনালদিনহো যেভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন, সে কথা স্মরণ করে এখনো আবেগতাড়িত হয়ে যান এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার, ‘আমি সব সময়ই বলেছি, প্রথমবার যখন সাজঘরে ঢুকি, তখন রোনালদিনহো ও অন্যান্য ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার, ডেকো, সিলভানহো আমাকে স্বাগত জানিয়েছিলেন। কিন্তু বিশেষত রোনালদিনহোর কাছ থেকে আমি অনেক কিছু শিখেছি। ওই সময় বার্সেলোনার সাজঘরে মানিয়ে নেওয়াটা আমার জন্য খুব একটা সহজ ছিল না। আর রোনালদিনহো আমাকে অনেক সাহায্য করেছিলেন। তাঁর কাছাকাছি থাকতে পারায় আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি। তিনি খুবই ভালো মানুষ আর এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার।’
২০০৩ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত বার্সেলোনার হয়ে দুইটি লা লিগা ও একটি চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জিতেছিলেন রোনালদিনহো। বার্সেলোনার নতুন দিনের সূচনাটাও তাঁর হাত ধরেই হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন মেসি, ‘রোনালদিনহো ক্লাবের দিনবদলে বড় ভূমিকা রেখেছেন। তাঁর আসার আগে বার্সেলোনা খারাপ একটা সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু তিনি অনেক কিছুই পরিবর্তন করে দেন। মানুষ তাঁকে ভালোবাসত। আমার মনে হয়, তিনি যা করেছেন তার জন্য বার্সেলোনার সারা জীবনই কৃতজ্ঞ থাকা উচিত।’