বার্তাবাংলা ডেস্ক »

NATABবার্তাবাংলা রিপোর্ট :: সরকারী ও বেসরকারী সকল পাবলিক প্লেস ও পরিবহনে আইন অনুসারে নিজ উদ্যোগে ধূমপানমুক্ত সাইন স্থাপন করার আহবান জানিয়েছে তামাক বিরোধী সংগঠনগুলো। আজ সকাল ১১টায় চারুকলা ইনিষ্টিটিউট হতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মোড় পর্যন্ত তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ তামাক বিরোধী জোট, প্রত্যাশা মাদক বিরোধী সংগঠন, ডাব্লিউবিবি ট্রাস্ট এবং নাটাব উদ্যোগে আয়োজিত র‌্যালী হতে এ আহবান জানানো হয়। র‌্যালী শেষে একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, পরোক্ষ ধূমপান হতে মানুষকে রক্ষায় ধূমপানমুক্ত স্থান একটি কার্যকর পদক্ষেপ। ধূমপানমুক্ত সাইন পাবলিক প্লেস ও পরিবহনকে ধূমপানমুক্ত রাখতে কার্যকর ভূমিকা রাখে । সর্বশেষ তামাক নিয়ন্ত্রণে আইন, ২০১৩ এর সংশোধনী অনুসারে বেসরকারী, আচ্ছাদিত কর্মক্ষেত্র, রেষ্টুরেন্ট, যাত্রীদের অপেক্ষমান সারি এবং জনগণের সম্মিলিত ব্যবহারের স্থান এর আওতাভুক্ত করা হয়। এসকল স্থানকে ধূমপানমুক্ত রাখার লক্ষে স্বÑস্ব মালিক, তত্বাবধায়ককে দায়িত্ব নিতে হবে। আইন অনুসারে এ সকল স্থানে ধূমপানমুক্ত সাইন স্থাপন করতে হবে অন্যথায় ১০০০ টাকা জরিমানার বিধান করা হয়েছে। ধূমপানমুক্ত স্থানে ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বক্তারা বলেন, সুনাগরিক আইন পালন করেন। আইনের প্রয়োগ প্রয়োজন তাদের জন্য যারা আইন ভঙ্গ করেন। সরকার আইন করেছে আর আইনটি পালনের অংশ হিসেবে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানকে ধূমপানমুক্ত করা প্রতিটি সুনাগরিকের দ্বায়িত্ব ও কর্তব্য। যে সকল প্রতিষ্ঠান এখনো আইন অনুসারে ধূমপানমুক্ত নয় তাদের ধূমপান মুক্ত করার জন্য সমাবেশ হতে আহবান জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, প্রত্যাশা মাদক বিরোধী সংগঠনের সেক্রেটারী জেনারেল হেলাল আহমেদ, ডাব্লিউবিবি ট্রাস্ট এর প্রোগ্রাম ডিরেক্টর সৈয়দ মাহবুবুল আলম, নাটাব এর ডকুমেন্টেশন এন্ড নেটওয়ার্ক অফিসার ফারহানা সুলতানা, ইকো সোসাইটির চেয়ারম্যান এবং সিইও এস, কে আরিফ আহমেদ, গ্রীন মাইন্ড সোসাইটির নির্বাহী পরিচলক আমির হাসান, সমন্বিত প্রমিলা মুক্তি প্রচেষ্টার নির্বাহী পরিচালক মোঃ মোকাররম হোসেন, বিসিএইচআরডি এর প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর এস এম তাজ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »