ত্বকী হত্যা: সন্দেহভাজনকে হাইকোর্টের জামিন

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: নারায়ণগঞ্জের মেধাবী ছাত্র ত্বকী হত্যাকাণ্ডে সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার সালেহ রহমান সীমান্তকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেন সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।
একই সঙ্গে তাকে কেন স্থায়ী জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুলও জারি করেছেন আদালত।
সোমবার আসামির জামিন আবেদনের পক্ষে ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল আদালতে শুনানি করেন বলে জানায় সরকারি সংবাদ সংস্থা বাসস।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ত্বকী হত্যাকাণ্ডের পর ১৮ এপ্রিল সীমান্তকে সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে আটক করে পুলিশ। তার নাম এজাহারে ছিল না।
পরে পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত তার বিরুদ্ধে পাঁচদিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করে।
পরবর্তীতে ১২ মে নারায়ণগঞ্জ জেলা দায়রা জজ আদালত তার জামিন আবেদন নাকচ করে দেয়। এ অবস্থায় হাইকোর্টে জামিন আবেদন করলে সীমান্তের ছয় মাসের জামিন মঞ্জুর করেন হাইকোর্ট বেঞ্চ।
একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় সংগঠিত মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে গড়ে ওঠা ঢাকার শাহবাগ আন্দোলনের (গনজাগরণ মঞ্চ) সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে নারায়ণগঞ্জেও এ আন্দোলন গড়ে তোলা হয়।
নারায়ণগঞ্জে গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম উদ্যোক্তা বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বির বড় ছেলে মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী (১৭)।
গত ৬ মার্চ বিকেলে ত্বকী শহরের শায়েস্তা খান সড়কের বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। পরে ৮ মার্চ সকালে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে তার লাশ পাওয়া যায়।
লাশ উদ্ধারের পর ওই রাতেই ত্বকীর বাবা রাব্বি বাদী হয়ে অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে একটি মামলা করেন।