বিশ্বজিৎ হত্যায় ২১ আসামির বিচার শুরুর আদেশ

বার্তবাংলা রিপোর্ট :: বিশ্বজিৎ দাস হত্যা মামলায় ২১ ছাত্রলীগ কর্মীর বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছে আদালত। রোববার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মো. জহুরুল হক রোববার তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। একইসঙ্গে এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর জন্য আগামী ১৩ জুন ঠিক করা হয়েছে।

গত ৫ মার্চ এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক তাজুল ইসলাম ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ২১ ছাত্রদল কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন। পরে ১৯ মে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয় আদালত। আসামিদের মধ্যে ৮ জন গ্রেপ্তার ও বাকিরা পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণ: গত বছরের ৯ ডিসেম্বর বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের অবরোধ চলাকালে পুরান ঢাকার ভিক্টোরিয়া পার্কের কাছে দর্জির দোকানি বিশ্বজিৎকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট

ওই দিন বিরোধীদলের ডাকা অবরোধ কর্মসূচি চলাকালে পুরান ঢাকার ভিক্টোরিয়া পার্কের কাছে ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটে। তখন অবরোধ প্রতিরোধ করতে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা বিরোধীদলীয় কর্মীদের ধাওয়া দেন। এতে আতঙ্কিত হয়ে পথচারী বিশ্বজিৎ দৌড়ে পার্কের উত্তর পাশের একটি ডেন্টাল ক্লিনিকে (দোতলায়) আশ্রয় নেন।

তখন ছাত্রলীগের কর্মীরা দোতলায় উঠে বিশ্বজিৎকে ধরে চাপাতি দিয়ে কোপান এবং রড-লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। সেখান থেকে মারতে মারতে নিচে নামিয়ে আবার তাকে চারদিক থেকে ঘিরে বর্বর নির্যাতন করা হয়। বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও সংবাদপত্রের কর্মীরা ছাত্রলীগের হামলার এ দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করেন, যা পরে প্রকাশ করা হয়।

হাইকোর্টের নির্দেশে গণমাধ্যমে প্রচারিত ছবি দেখে গ্রেপ্তার করা আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিশ্বজিতের ওপর হামলায় জড়িত হিসেবে ২১ জনকে চিহ্নিত করা হয়। তারা সবাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কর্মী। এদের মধ্যে ৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট