সোনারগাঁওয়ে পুলিশি হেফাজতে যুবকের মৃত্যু

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে পুলিশি হেফাজতে শামীম রেজা নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ৪টি খুনের মামলার সন্দেহভাজন হিসেবে আটক ওই যুবককেসকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। নির্যাতনের কারণে শামীমের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে তার পরিবার।

পরিবারের সদস্যরা বলছেন, এ মাসের ১৪ তারিখে সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের স্ত্রী হত্যার অভিযোগে ঝাউচর গ্রামের বাড়ি থেকে শামীমকে আটক করে পুলিশ। ছয়দিন পুলিশ হেফাজতে থাকার পর ২০মে তাকে নারায়ণগঞ্জ জেলা জজ আদালতে আনা হলে শারীরিক অসুস্থতার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় কেন্দ্রীয় কারাগার হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে মারা যান শামীম।

শামীমের বড় ভাই ইকবাল হোসেন অভিযোগ করেন, মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তার বাসায় রাখা হয় শামীমকে এবং তার মুক্তির বিনিময়ে ঘুষ চাওয়া হয়। এ ঘটনায় হত্যা মামলা করার কথা জানিয়েছেন তিনি।

২০ এপ্রিল ঝাউচর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের স্ত্রী, শ্যালক ও দু’জন কাজের মেয়েসহ মোট ৪ জনকে নিজ বাসভবনে জবাই করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ২১ এপ্রিল সোনারগাঁও থানায় মামলা হয়। এই মামলায় শামীমকে গ্রেপ্তার করা হয়।