কায়সারকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

বার্তবাংলা রিপোর্ট :: মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জাতীয় পার্টির নেতা সাবেক কৃষি প্রতিমন্ত্রী সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। বুধবার জামিনের আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দিয়েছে।

ট্রাইব্যুনালে জামিনের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন কায়সারের আইনজীবী এসএম শাহজাহান।

তিনি ট্রাইব্যুনালকে বলেন, সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার বার্ধক্যজনিত নানা রোগে গুরুতর অসুস্থ। তিনি একা হাঁটা চলাফেরা করতে পারেন না। হুইল চেয়ারে চলাফেরা করতে হয় তাকে। তাই তার অবস্থার কথা বিবেচনায় এনে জামিনের আবেদন জানাচ্ছি।

আবেদনের বিরোধিতা করেন রাষ্ট্রপক্ষের প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হলে তাকে জেলহাজতে পাঠায় ট্রাইব্যুনাল। তবে ট্রাইব্যুনাল আদেশে জানায়, কারা কর্তৃপক্ষ মনে করলে তার চিকিৎসার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে। আসামিপক্ষ জামিনের আবেদন জানালে বুধবার এ আবেদনের শুনানি ও আদেশ দিন ঠিক করা হয়।

দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতাল থেকে সৈয়দ কায়সারকে ছেড়ে দেয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গত ১৬ মে বৃহস্পতিবার থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় পুলিশ তাকে নজরদারিতে রাখে। অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জানতে পেরে সেখানে পাহারা বসায় পুলিশ। তবে হাসপাতালের আইসিইউতে থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করতে পারছিল না পুলিশ।

এর আগে গত ১৫ মে কায়সারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ট্রাইব্যুনাল।

উল্লেখ্য, একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের বিরুদ্ধে তদন্তকাজ করছে ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। তার বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ সময় রাজাকার বাহিনী গঠন করে হবিগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ বৃহত্তর কুমিল্লায় হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও রাহাজানিসহ নানা মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।