লন্ডনে ক্রাউনপ্লাজায় তারেক রহমানের সভা পণ্ড, পাম ট্রিতে শান্তিপূর্ণ

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ, লন্ডন :: বহুল আলোচিত ও বহুল প্রতীক্ষিত যুক্তরাজ্য বিএনপির নতুন কমিটি গঠণের লক্ষ্যে এবং নেতা-কর্মীদের কাংক্ষিত জাতীয়তাবাদীদলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব, লন্ডনে চিকিৎসাধীন তারেক রহমানের উপস্থিতিতে সোমবার বেলা আনুমানিক দুইটার দিকে লন্ডনের ক্রাউন প্লাজা হোটেলে বিএনপির সভা শুরু হয়। ব্রিটেন ও ইউরোপের ২৪টি দেশের বিএনপির শাখা কমিটির প্রেসিডেন্ট, সম্পাদক, আহবায়ক এবং নির্বাচিত প্রতিনিধিদের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী ক্রাউন প্লাজায় উপস্থিত হন। তারেক রহমানের উপস্থিতিতে নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দেয়। ক্রাউন প্লাজা শহীদ জিয়া, খালেদা জিয়া আর তারেক রহমানের শ্লোগানে প্রকম্পিত হতে থাকে। হোটেলের লবির ভিতরে স্থান সংকুলান না হওয়াতে অনেক নেতা-কর্মী বাইরে থেকে হোটেলে ঢোকার জন্য গেইটে ধাক্কা-ধাক্কি করতে থাকেন এবং এক পর্যায়ে উত্তেজিত কর্মী-সমর্থকরা ভিতরের পক্ষের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকলে সেখানে উপস্থিত নেতা-কর্মীদের সাথে কথা কাঠাকাঠি শুরু হয়। একপর্যায়ে তা হাতাহাতির পর্যায়ে চলে যায়।

বাইরের এই বিশৃঙ্খলার সংবাদ ভিতরে পৌছলে সেখানেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।এই পর্যায়ে তারেক রহমানের উপস্থিতিতে নেতা-কর্মীরা একে অন্যের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পড়লে সভায় বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়।যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আকতার হোসেন সভায় শৃংখলা রক্ষার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। উপস্থিত বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মহিদুর রহমান, সাবেক কমিটির আব্দুল মালিক, ব্যারিস্টার এম এ সালাম নিজেদের কর্মী-সমর্থকদের শান্ত করতে পুরোপুরি ব্যার্থ হন। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে সভা পন্ড হয়ে যায়।

বেলা দুইটায় ক্রাউন প্লাজার সভার শুরুতে তারেক রহমান স্বাগত বক্তব্য দেন। এতে তিনি বাংলাদেশের নিহত জনগণের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন, দূর্গত জনগণের সাহায্যে নেতা-কর্মীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। এছাড়াও তিনি সরকারের দমন-পীড়নে বিএনপি নেতা-কর্মীদের খোজ-খবর নেন।স্বাগত বক্তব্যে তিনি যুক্তরাজ্য বিএনপির শক্তিশালি কমিটি গঠণের ঘোষণা দিলে পুরো হলে বিএনপি নেতা কর্মীরা তখন উল্লাসে ফেটে পড়েন।স্বাগত বক্তব্যের পর তারেক রহমান তখন বিভিন্ন শাখা কমিটির প্রতিনিধিদের বক্তব্য দেয়ার আহবান জানান এবং তিনি সকলেরই বক্তব্য শুনবেন বলে সবাইকে আশ্বস্থ করেন। এই পর্যায়ে একে অন্যের বক্তব্যের বিরোধীতা আর বাইরের হট্রগোলে একে অন্যের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পড়লে সভা পন্ড হয়ে যায়।হোটেল কতৃপক্ষ নিরাপত্তার অজুহাতে পুলিশ কল করলে সভায় উপস্থিত উভয় গ্রুপের নেতা-কর্মীদের সরিয়ে দেয়, এখান থেকে পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করেনি। জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতা আকতার হোসেন সামান্য আহত হয়েছেন, তবে মহিদুর রহমাম, আব্দুল মালিক, এম এ সালাম সহ সভার প্রধান অতিথি তারেক রহমান সভা এখানে স্থগিতের ঘোষণা দিয়ে পাল্ম ট্রি রেষ্টুরেন্টে চলে আসার কথা বলে সেখানে চলে যান।তারেক রহমান, মহিদুর রহমান, আব্দুল মালিক, এম এ সালাম কেউই সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেননি।

পরে বিকেলের দিকে ক্রাউন প্লাজা থেকে সভা সরিয়ে নিয়ে পাল্ম ট্রি রেষ্টুরেন্টে শুরু হয়। সেখানে নির্ধারিত নেতা-কর্মী ছাড়া আর কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। পাল্ম ট্রি রেষ্টুরেন্টে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে সভা চলছিলো।সেখানে তারেক রহমান অত্যন্ত ধৈর্য সহকারে নেতা-কর্মীদের বক্তব্য শুনেন এবং মাঝে-মধ্যে নিজের ডায়রীতে নোট লিখে নিচ্ছিলেন।ক্রাউন প্লাজার মতোই তিনি সবাইকে আশ্বস্থ করেন, সকলের মতামতের ভিত্তিতেই যুক্তরাজ্য বিএনপির গতিকে শক্তিশালি করতে নতুন কমিটি শীগ্রই তিনি ঘোষণা করবেন।এই সভায় বিএনপি নেতা আকতার এবং অধ্যাপক আব্দুল আহাদকে বেশ শান্তিপূর্ণভাবে পরিস্থিতি সামাল দিয়ে তারেক রহমানের সভাকে সাফল্যমন্ডিত করার লক্ষ্যে সকল পক্ষের সাথে সমঝোতার পরিবেশ তৈরিতে ভুমিকা রাখতে দেখা যায়।শান্তিপূর্ণভাবে সভা অনেক রাত অবধি চলে।