বার্তাবাংলা ডেস্ক »

microsoftবার্তাবাংলা রিপোর্ট :: মানুষের জীবনমান উন্নয়নে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে মাইক্রোসফট আয়োজন করে আসছে ‘ইমাজিন কাপ’ শীর্ষক প্রতিযোগিতা। ১১ বছর ধরে চলমান প্রতিযোগিতাটি এবার তৃতীয়বারের মতো অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র এবং অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতার বিশ্ব আসরে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা। ২০১১ সালে প্রথমবারই ১৯০টি দেশের মধ্যে ‘পিউপল’স চয়েস’ বিভাগে বিশ্বসেরা হয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের তরুণরা। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৬ এপ্রিল ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয় মাইক্রোসফট ‘ইমাজিন কাপ ২০১৩’ এর বাংলাদেশ পবের্র চূড়ান্ত আসর।

এই পর্বে ১৩৫৪টি টিমের মধ্যে ১২টি টিম চূড়ান্ত পর্যায়ে আসে। তারমধ্যে চারটি টিম ইমাজিন কাপের আন্তর্জাতিক পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে। আগামী ১২ জুলাই রাশিয়ার পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠেয় মাইক্রোসফট ইমাজিন কাপের বিশ্ব আসরে অংশ নিতে পারবে তারা। আন্তর্জাতিক পর্যায়ের আসরে মাইক্রোসফটেরই সকল খরচ বহন করার কথা। মাইক্রোসফটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটেই এ বিষয়ে পরিস্কারভাবে বলা হয়েছে যে, আন্তর্জাতিক পর্যারের আসরে অংশগ্রহণকারী দলের সদস্যরা ও একজন মেন্টরের বিমানভাড়া, আবাসন ও খাবার দাবারের ব্যবস্থা করবে মাইক্রোসফট। গত আসরগুলোতে বিষয়টি মেনে চললেও এবছর কথা রাখছে না মাইক্রোসফট।

এ সম্পর্কে মাইক্রোসফট বাংলাদেশের টেকনিক্যাল ইভানজেলিস্ট তানজিব সাকিব বলেন, গতবছর জিপিআইটির সহায়তায় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের সকল খরচ বহন করা হয়। তবে এবছর স্পন্সর না পাওয়া যাওয়াতে প্রতিযোগীদের সহায়তা করতে পারছে না মাইক্রোসফট। তবে বিজয়ীরা ইচ্ছে করলে নিজের খরচে বা স্পন্সর জোগাড় করে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে।

প্রসঙ্গত, স্পন্সর না পাওয়ার কারণে আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। বিশ্বকে তাক তালানোর আরেকটি সুযোগ হাতছাড়া হতে যাচ্ছে। মাইক্রোসফটের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সবারই এগিয়ে আসা উচিত বলে মনে করছেন আইটি সেক্টরের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »