বার্তাবাংলা ডেস্ক »

লিওনেল মেসি মাঠে নামা মানেই যেন কোনো না কোনো রেকর্ড। কাল জুভেন্টাসের বিপক্ষে জোড়া গোল অর্জনের মুকুটে আরও কিছু পালক যুক্ত করেছে। তবে মেসি এভাবেও ভাবতে পারেন, এখনো অনেক পথ পাড়ি দেওয়া বাকি। গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু রেকর্ড যে এখনো তাঁর মুঠোয় আসেনি। এ রকমই পাঁচ রেকর্ড—

বার্সেলোনার হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ
মেসি বার্সেলোনার ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা, কিন্তু দলটির হয়ে সর্বোচ্চসংখ্যক ম্যাচ খেলার রেকর্ডটি এখনো জাভি হার্নান্দেজের। ১৯৯৮ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বার্সার জার্সিতে ৭৬৭ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলেছেন জাভি। প্রদর্শনী কিংবা আন-অফিশিয়াল ম্যাচ মিলিয়ে সংখ্যাটা ৮৬৯। মেসি বার্সার হয়ে এ পর্যন্ত ৫৮৯ ম্যাচ খেলে চতুর্থ। তাঁর ও জাভির মাঝে যথাক্রমে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা (৬৩৪ ম্যাচ) ও কার্লোস পুয়োল (৫৯৩ ম্যাচ)। বার্সেলোনায় ক্যারিয়ারের বাকি সময় থাকলে হয়তো জাভির রেকর্ডটা ভাঙতে পারেন মেসি।

আর্জেন্টিনার হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ
জাতীয় দলের হয়েও সেই একই ব্যাপার। মেসি আর্জেন্টিনার জার্সিতে সর্বোচ্চ গোলদাতা কিন্তু সর্বোচ্চসংখ্যক ম্যাচ খেলা ফুটবলার নন। আর্জেন্টিনার হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড হাভিয়ের জানেত্তির (১৪৫ ম্যাচ)। ১৯৯৪ থেকে ২০১১—এ ১৭ বছরে রেকর্ডটি গড়েছেন জানেত্তি। ২০০৫ থেকে এ পর্যন্ত ১২০ ম্যাচ খেলে মেসি এ তালিকায় তৃতীয়। তাঁর থেকে ১৭ ম্যাচ বেশি খেলে দ্বিতীয় হাভিয়ের মাসচেরানো।
চিলির কাছে কোপা আমেরিকা ফাইনালে টানা দুই দফা হারের হতাশায় জাতীয় দল থেকে অবসর ঘোষণা করেছিলেন মেসি। কিন্তু ভক্ত-সতীর্থ আর দেশের প্রতি টানে অবসর ভেঙে ফেরেন চলতি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব শুরুর আগে। আরও কয়েক বছর খেললে জানেত্তির রেকর্ডটা যে মেসির হবে, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

বার্সার হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বাধিক ফাইনাল
ইউরোপিয়ান কাপ ও চ্যাম্পিয়নস লিগ মিলিয়ে আসরটিতে মোট পাঁচ শিরোপা জিতেছে বার্সেলোনা। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়নস লিগে তিনটি ফাইনাল (২০০৯, ২০১১, ২০১৫) খেলেছেন মেসি। এ তিনবারই শিরোপা জিতেছে বার্সা। কিন্তু মেসি এখনো বার্সার হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বাধিকবার ফাইনাল খেলার রেকর্ড গড়তে পারেননি। এ রেকর্ডটি এখনো আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার দখলে।
মেসি যে তিনবার চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলেছেন, প্রত্যেক ম্যাচেই ইনিয়েস্তাকে সতীর্থ হিসেবে পেয়েছেন। মানে, ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৫ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল খেলেছেন ইনিয়েস্তা। দুজনের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছে ২০০৬ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল। আর্সেনালের বিপক্ষে সেবারের ফাইনালটা ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি মেসি। কিন্তু সে ম্যাচে ইনিয়েস্তা মাঠে নেমেছিলেন। অর্থাৎ, বার্সার হয়ে সর্বাধিক চারবার চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলেছেন ইনিয়েস্তা।

লা লিগায় এক ম্যাচে সর্বোচ্চ গোল
স্প্যানিশ লা লিগায় একের পর এক রেকর্ড ভেঙেছেন লিওনেল মেসি। কিন্তু আসরটির ৮৮ বছরের ইতিহাসে বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড এখনো একটি রেকর্ড ভাঙতে পারেননি । সেটা হলো, এক ম্যাচে সর্বোচ্চসংখ্যক গোল।
ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো লা লিগার এক ম্যাচে ৫ গোল করেছেন দুইবার করে। মেসি এক ম্যাচে সর্বোচ্চ চার গোল করেছেন। তবে লা লিগার এক ম্যাচে সর্বাধিক গোলের রেকর্ডটি তাঁদের কারওরই নয়। ১৯৩২ সালে লিগেরই এক ম্যাচে ৭ গোল করেছিলেন অ্যাথলেটিক বিলবাও স্ট্রাইকার অগাস্টিন সাউতো। ঠিক তার বিশ বছর পর আরেক ম্যাচে বার্সার হয়ে একাই ৭ গোল করে ঘটনাটির ‘পুনর্জন্ম’ দিয়েছিলেন হাঙ্গেরি কিংবদন্তি লাজলো কুবালা।

ম্যাচের প্রত্যেক মিনিটে গোল
ফুটবল ম্যাচের প্রতি মিনিটে গোল করার রেকর্ড গোটা বিশ্বে রয়েছে শুধু দুজনের—ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ। ক্যারিয়ার জুড়ে অসংখ্য ম্যাচ মিলিয়ে এ রেকর্ড গড়েছেন তাঁরা। মেসি এ পর্যন্ত ম্যাচ শুরুর ৩ মিনিট থেকে যোগ করা সময়—এর মধ্যে প্রত্যেক মিনিটেই গোল করেছেন। শুধু ম্যাচের প্রথম দুই মিনিটে গোল করতে পারেননি।
প্রথমার্ধের শেষ মিনিট থেকে বিরতির আগ পর্যন্ত মেসি ভীষণ বিপজ্জনক। এ সময়ে ১৩ গোল করেছেন মেসি। একই ভাবে ৯০ মিনিট থেকে ম্যাচ শেষ হওয়া পর্যন্ত তাঁকে বোতলবন্দী করে রাখাও চ্যালেঞ্জ ডিফেন্ডারদের জন্য। ম্যাচের এ মুহূর্তে ২৯ গোল করেছেন মেসি। ৮০ থেকে ৮৮ মিনিটের মধ্যে তাঁর গোলসংখ্যা ৪৩।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »