বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

3Mohammadpur Picture Model school

মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি : মহম্মদপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আঙিনায় অপরিকল্পিতভাবে রাস্তা নির্মাণ করায় অল্প বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত প্রায় ১ হাজার ছাত্র-ছাত্রী। পানি ডিঙিয়ে কাসে যেতে সমস্যা সৃষ্টি হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন শিকরা।
জানা গেছে, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে উপজেলা সদরের বাসিন্দা বিদেশ ফেরত মোঃ মফিজুর রহমান বিশ্বাসের কাছ থেকে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্মল কুমার কুন্ডু রাস্তা নামকরণ করে দেয়ার কথা বলে মোটা অংকের চাঁদা গ্রহণ করেন। ঐ টাকার কিছু অংশ দিয়ে স্কুলের সহকারী শিক মোঃ মফিজুর রহমানকে দিয়ে স্কুল মাঠের মাঝখানে অপরিকল্পিতভাবে রাস্তা নির্মাণ করেন। এর ফলে সামান্য বৃষ্টিতেই সেখানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয় এবং খেলাধুলার সময় প্রায়শ দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে শিার্থীরা।
গত বৃহস্পতিবার দুপুরে মহম্মদপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরজমিন পরিদর্শনে দেখা গেছে,  বিদ্যালয়ের প্রবেশদ্বারসহ সম্পূর্ণ স্কুল এলাকা পানিতে থৈ-থৈ করছে। কাস না হওয়ায় পানির মধ্যে কাগজের নৌকা ভাসিয়ে খেলা করছে কোমলমতি শিশুরা। এতে করে চরমভাবে ভেঙে পড়েছে স্কুলের শিা ব্যবস্থা। এতে স্কুলের সৌন্দর্যও বিনষ্ট হচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিদ্যালয়ের একজন শিক বলেন, রাস্তা নির্মাণটা ছিল নামেমাত্র। মূলত চাঁদা আদায় ছিল সভাপতির মূল ল্য। বিদেশী ঐ ব্যক্তির কাছ থেকে নামকরণ করে দেয়ার কথা বলে সভাপতি ও সহকারী শিক মোঃ মফিজুর রহমান স্কুল মাঠে সংকীর্ণ রাস্তা নিমাণ করে মোট টাকাটা ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। তাছাড়া গত বছর বিদ্যালয়ের ছায়াদানকারী ৩টি রেইনট্রি গাছ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপরে অনুমতি ছাড়া বিক্রি করে ঐ দুই ব্যক্তি টাকা ভাগাভাগি করে নেন।
বর্তমানে দুবাই অবস্থানকারী মোঃ মফিজুর রহমান বিশ্বাসের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার ছেলে ঐ স্কুলে পড়ার সুবাদে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে বাড়ি আসলে সভাপতি একটি রাস্তার নামকরণ আমার নামে করবেন বলে আমার কাছ থেকে টাকা নেন। তারপর আমি বিদেশে ফিরে আসায় আর কিছু জানি না।
উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিা অফিসার মুহ. ওলিউর রহমান বলেন, আমাদের না জানিয়েই সভাপতি স্কুল মাঠে অপরিকল্পিতভাবে রাস্তা করেছেন।
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নির্মল কুমার কুন্ডু চাঁদা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয়ের উন্নয়নের স্বার্থে রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়েছে। প্রধান শিক মোঃ আলিমুজ্জামান বলেন, স্কুল মাঠে রাস্তা নির্মাণ করায় স্কুল যেমন তার সৌন্দর্য হারিয়েছে তেমনি দুর্ভোগ বেড়েছে আমাদের।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »