বার্তাবাংলা ডেস্ক »

index

এস এ চৌধুরী,মৌলভীবাজার:: মৌলভীবাজারে- সরকারি রাস্তার উপর নির্মিত কালভার্ট বন্ধ করে এক প্রভাবশালী ব্যক্তি কর্তৃক পানি চলাচলে বাঁধাগ্রস্থ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে কমলগঞ্জ ইউএনও’র কাছে একটি লিখিত অভিযোগ প্রদান করা হয়েছে। ঘটনাটি জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার বনগাঁও-ভেড়াছড়া এলাকায়।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে ও এলাকাবাসী মো: খোকন মিয়া, মো: আব্দুর রশীদ, আব্দুর রহমান, আব্দুল আমিন, মো: সামাদুল ইসলাম ও ইলিয়াছ মিয়ার সাথে আলাপ করে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার ৫নং কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের বনগাঁও-ভেড়াছড়া সরকারি রাস্তার উপর নির্মিত কালভার্ট পাশ্ববর্তী প্রভাবশালী মো: লিয়াকত আলী এলাকাবাসীর আপত্তির পরও জোরপূর্ব্বক বন্ধ করে পানি চলাচলে বাঁধাগ্রস্থ করেছেন। স্থানীয় লোকজন বিষয়টি ইউপি সদস্য আলহাজ্ব মো: সাব্বিরুল হক শামীম ও লিয়াকত আলীর চাচা মো: শামদ আলীসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের শরনাপন্ন হন। ইউপি সদস্যসহ গণ্যমান্য লোকজন কালভার্টটি খুলে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানালেও প্রভাবশালী লিয়াকত আলী এতে কর্ণপাত না করে তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন।
এই ঘটনায় সরেজমিন তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়ে এলাকাবাসীর পক্ষে ভেড়াছড়া গ্রামের মো: খোকন মিয়াসহ প্রায় একশত লোক স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে প্রদান করা হয়েছে। যার অনুলিপি জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ, জেলা প্রশাসক, কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ, ৫নং কমলগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ভেড়াছড়া গ্রামের মো: লিয়াকত আলীর বক্তব্য জানার জন্য একাধিকবার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
গতকাল বুধবার বিকেলে এ ব্যাপারে আলাপকালে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা জানান, বিষয়টি সরেজমিন তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কমলগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দিয়েছেন।
কমলগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া শফি জানান, ঘটনাটি এলাকার লোকজন আমাকে জানিয়েছেন। ইউএনও সাহেব আমাকে সরেজমিন তদন্ত করে মতামত দাখিলের জন্য বলেছেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »