মারধরের শিকার কুবি শিক্ষার্থী হাসপাতালে ভর্তি

মোহাম্মদ রুবেল

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত শিক্ষার্থী মোহাম্মদ রুবেলকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাংলা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী নাসির উদ্দিন এর নেতৃত্বে আরো অজ্ঞাতনামা দুই থেকে তিনজন কর্তৃক ভুক্তভোগী রুবেল মারধরের শিকার হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীর পক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগী রুবেলের সহপাঠীরা। অভিযোগের ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে ২৪ ঘণ্টার সময়ও বেঁধে দিয়েছে তারা।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত  ১৩ জানুয়ারি সোমবার বিকাল ৩ টার দিকে কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সামনে বাংলা বিভাগের ১৩ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নাসির উদ্দীন জিসান ( ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী রুবেলের উপর  তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে  অতর্কিত চড়াও হয়। এসময় তার সঙ্গে অজ্ঞতানামা আরও দুই থেকে তিনজন মারামারিতে অংশগ্রহণ করে।

পরবর্তীতে  বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসায় সুস্থ হয়।

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট

তবে  গতকাল মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি)  বিকালে সে গুরুতর  অসুস্থ হয়ে পড়লে বিশ্ববিদ্যালয় এম্বুল্যান্স যোগে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা খারাপ দেখে মেডিকেল কলেজে ভর্তির পরামর্শ দেন। বর্তমানে সে মেডিকেলের সার্জারী বিভাগে চিকিৎসারত ও ভর্তি আছে।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত নাসির উদ্দিন জিসান বলেন, ‘অামি অামার এক ছোট ভাইয়ের সাথে কথা বলছিলাম। রুবেল আমার সাথে কথা কাটাকাটি করতে এসে আমাকে মেরেছে, পরে আমি প্রতিরোধ করেছি। তখন হয়তো সে ব্যথা পেয়েছে। এখানে আমার কোনো দোষ নাই।’

অভিযোগের বিষয়ে  বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী কামাল উদ্দীন বলেন, ‘আমি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টির গুরুত্বের সাথে আমলে নিয়েছি। অতিদ্রুত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট