বড় পুরষ্কার পেলেন আর্চার

বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড

চলতি বছর ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের সবচেয়ে সাড়া জাগানো পারফরমার নিঃসন্দেহে ডানহাতি পেসার জোফরা আর্চার। ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ এবং পরে অ্যাশেজ সিরিজে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন ক্যারিবীয় বংশোদ্ভূত এ গতিতারকা। যার সুবাদে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) তাকে বড় পুরষ্কার দিতে কার্পণ্য করেনি।

আসন্ন ক্রিকেট মৌসুম তথা ২০১৯-২০’র জন্য নিজেদের কেন্দ্রীয় চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের তালিকা প্রকাশ করেছে ইসিবি। যেখানে তিন ফরম্যাটের চুক্তিতেই রাখা হয়েছে জোফরা আর্চারকে। গত মে মাসে আন্তর্জাতিক অভিষেক হওয়া আর্চার, মাত্র ৪ মাসের মধ্যেই চলে এলেন ইসিবির চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের তালিকায়।

শুক্রবার এ কেন্দ্রীয় চুক্তি ঘোষণা করেছে ইসিবি। মাত্র ৬ জন খেলোয়াড়কে দেয়া হয়েছে তিন ফরম্যাটের চুক্তি। যার মধ্যে একজন হলেন আর্চার। এছাড়া সবমিলিয়ে মোট ২২ জন খেলোয়াড়কে ২০১৯-২০ মৌসুমের জন্য তালিকাভুক্ত করেছে ইসিবি। টেস্ট ক্রিকেটের জন্য ১০ এবং সীমিত ওভারের জন্য ১২ জন খেলোয়াড়কে রাখা হয়েছে এই কেন্দ্রীয় চুক্তিতে।

এদিকে আর্চার ছাড়াও প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ডাক পেয়েছেন ররি বার্নস, জো ডেনলিরাও। সদ্য সমাপ্ত অ্যাশেজে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৩৯০ রান করার মাধ্যমে টেস্টের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছে বার্নস। অন্যদিকে স্পিন বোলিং সামর্থ্য থাকায় সাদা বলের ক্রিকেটে রাখা হয়েছে ডেনলিকে।

গত মৌসুমে তিন ফরম্যাটের চুক্তিতে থাকলেও, এবার তা পাননি দুই স্পিনিং অলরাউন্ডার মইন আলি এবং আদিল রশিদ। লাল বলের ক্রিকেটে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের কারণে দুজনকেই শুধুমাত্র সীমিত ওভারের ক্রিকেটের জন্য চুক্তিতে রেখেছে ইসিবি। এছাড়া অ্যালেক্স হেলস, লিয়াম প্লাঙ্কেট ও ডেভিদ উইলি তাদের সাদা বলের চুক্তিও হারিয়েছেন।

২০১৯-২০ মৌসুমে ইংল্যান্ডের চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের তালিকা

তিন ফরম্যাটের জন্য: জোফরা আর্চার, জনি বেয়ারস্টো, জস বাটলার, জো রুট, বেন স্টোকস এবং ক্রিস ওকস।
শুধুমাত্র টেস্টের জন্য: জিমি অ্যান্ডারসন, স্টুয়ার্ট ব্রড, স্যাম কুরান এবং ররি বার্নস।
শুধুমাত্র ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির জন্য: মইন আলি, জো ডেনলি, ইয়ন মরগ্যান, আদিল রশিদ, জেসন রয় এবং মার্ক উড।