খুলনায় ডেঙ্গু আক্রান্ত দুই জনের মৃত্যু

ডেঙ্গু জ্বর

খুলনায় ডেঙ্গু আক্রান্ত দুই জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে স্কুল ছাত্র মঞ্জুর শেখ (১৬) রূপসা উপজেলার খাজাডাঙ্গা এলাকার বাবুল শেখের ছেলে। সে রূপসার কাজদিয়া সরকারি কলেজিয়েট স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র। রবিবার ভোররাতে বেসরকারি গাজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

অপরদিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত ১২ টার দিকে মর্জিনা বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে।
জানা যায়, শিক্ষার্থী মঞ্জুর শেখ কয়েকদিন ধরে প্রচণ্ড জ্বরে ভুগছিল। সাধারণ জ্বর ভেবে পরিবারের সদস্যরা স্থানীয় চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন। কিন্তু কোন উন্নতি না হওয়ায় শনিবার তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নিতে বলেন। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে গাজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসক ডা. এসএম সাকিল আহমেদ বলেন, রোগীর স্বজনরা চিকিৎসা না দিয়ে তাকে বাড়িতে রেখে সময়ক্ষেপণ করেছে। তার রক্তের প্লাটিনেট (অনুচক্রিকা) ১৬ হাজারে নেমে এসেছিল। সাধারণত: তা’ দেড় থেকে তিন লাখ থাকে। স্বজনরা রক্ত জোগাড় করতে পারেনি। এরই মধ্যে তার সারা শরীর লাল হয়ে ফুলে উঠে। জরুরী অবস্থায় তার চিকিৎসা শুরু হয়। পরে ভোর পৌনে ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

অপরদিকে, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (খুমেক) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মর্জিনা বেগম (৬৫) মারা গেছেন। মর্জিনা বেগম খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার ব্রম্মগাতি গ্রামের ইসরাইল সরদারের স্ত্রী। শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে তিনি মারা যান। খুমেকের মেডিসিন বিভাগের সহকারী রেজিস্টার ডা. পার্থ প্রতীম দেবনাথ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।