বার্তাবাংলা ডেস্ক »

kamrujjamanবার্তবাংলা রিপোর্ট :: আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে একাত্তরের মানবতা বিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের মামলার কার্যক্রম শেষ হয়েছে। রায় হবে যেকোনো দিন।
সোমবার ট্রাইব্যুনাল-২ মঙ্গলবার কামারুজ্জামানের মামলার সকল কার্যক্রম শেষ করার জন্য প্রসিকিউশনকে নির্দেশ দেন।
সোমবার ট্রাইব্যুনালের আদেশ অনুযায়ী আসামিপক্ষ থেকে এই মামলার যুক্তি উপস্থাপন শেষ করা হয়।
মঙ্গলবার প্রসিকিউশনের পক্ষ থেকে পাল্টা যুক্তি উপস্থাপন করা হয়। মুক্তিযুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, অপহরণসহ মোট ৭টি অভিযোগ রয়েছে কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে।
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের সাতটি ঘটনায় গত বছরের ৪ জুন অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে ট্রাইব্যুনালে কামারুজ্জামানের বিচার শুরু হয়। এর আগে ৩১ জানুয়ারি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয় ট্রাইব্যুনাল।
২০১০ সালের ২৯ জুলাই এক মামলায় কামারুজ্জামানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে ২ আগস্ট তাকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের লক্ষ্যে ২০১০ সালের ২৫ মার্চ গঠিত হয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। গত বছরের ২২ মার্চ গঠিত হয় দ্বিতীয় ট্রাইব্যুনাল। গঠনের ৩ বছর পর এসে চতুর্থ কোনো অভিযুক্তের বিরুদ্ধে বিচারিক প্রক্রিয়া শেষ হলো। এর আগে ৩ জনের মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২১ জানুয়ারি ফাঁসির আদেশ দিয়ে জামায়াতের সাবেক রোকন (সদস্য) আবুল কালাম আজাদ বাচ্চু রাজাকারের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল-২। একই ট্রাইব্যুনাল গত ৫ ফেব্রুয়ারি জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন।
অন্যদিকে জামায়াতের নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রায় ঘোষণা করেছেন ট্রাইব্যুনাল-১।গত ২৪ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত এবং মঙ্গলবার ৫ কার্যদিবসে রাষ্ট্রপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু, প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট এ কে এম সাইফুল ইসলাম ও প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট নুরজাহান বেগম মুক্তা। অন্যদিকে ৩ থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ৩ কার্যদিবসে আসামিপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক ও আইনজীবী এহসান এ সিদ্দিকী।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »