নিজস্ব প্রযুক্তির অপারেটিং সিস্টেম ‘হংমেং’ দিয়ে চলবে হুয়াওয়ে

হুয়াওয়ে

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে আঘাত আসতে পারে সে কথা বিবেচনায় ছিল চীনা টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের। তাই তারা আজ থেকে আরও সাত বছর আগেই নিজস্ব প্রযুক্তিকে অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করার কাজ শুরু করে। যার নাম ‘হংমেং।’

চলতি বছরের মার্চে হুয়াওয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রিচার্ড জু বলেন, তাদের কোম্পানি নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করছে। যাতে করে যুক্তরাষ্ট্র যদি কোনো অপ্রত্যাশিত অবরোধ আরোপ করে কিংবা কোনো ধরনের বিপদ হিসেবে দেখা দেয় তাহলে তা মোকাবিলা করা যাবে।

গুগল আজ ঘোষণা দিয়েছে যে, এখন থেকে হুয়াওয়ের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে কিছু সেবার আর কোনো আপডেট ভার্সন দেবে না তারা। তবে ‘ওপেনসোর্স প্ল্যাটফর্ম’–এ থাকা সফটওয়্যারগুলো সচল থাকবে হুয়াওয়ের স্মার্টফোনগুলোতে।

মার্কিন টেক জায়ান্ট গুগলের এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে নতুন হুয়াওয়ে স্মার্টফোনে গুগলের ইউটিউব, জি-মেইল, ক্রোম ব্রাউজার এবং গুগল ম্যাপসের মতো অ্যাপগুলো আর থাকবে না। গুগলের এমন সিদ্ধান্ত চিন্তায় ফেলেছে হুয়াওয়ে ব্যবহারকারীদের।

হুয়াওয়ে সেন্ট্রাল নামে কোম্পানিটির একটি ওয়েবসাইটে সূত্রের বরাত দিয়ে হুয়াওয়ের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেমের এই খবর জানিয়েছে। ২০১২ সালে হুয়াওয়ে ‘হংমেং’ নামে তাদের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেমটি তৈরি করার কাজ শুরু করে।

ওয়েবসাইটটি বলছে, হংমেং নামে তারা হুয়াওয়ের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম আছে বলে জানালেও এটা প্রকৃত নাম নাকি কোনো কোড নামের মাধ্যমে সিস্টেমটি তৈরির কাজ করা হচ্ছে তা নিশ্চিত করতে পারেনি চীনা সেই সূত্র।

তবে হুয়াওয়ে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে এমন নামের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। কিন্তু গুগলের এমন ঘোষণার আগে থেকেই যে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেক জায়ান্ট হুয়াওয়ে বিকল্প পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম তৈরির কাজ করছে সেটা অনুমিত।

সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুয়াওয়েকে ‘ব্ল্যাকলিস্টেড’ করে। হুয়াওয়েকে যুক্তরাষ্ট্রের কালো তালিকাভুক্তির কারণেই গুগলের এমন সিদ্ধান্ত। কেননা এর কারণে হুয়াওয়ের সঙ্গে বাণিজ্য করতে হলে মার্কিন কোম্পানিগুলোকে এখন লাইসেন্স নিতে হয়।