বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

ভারতীয় ক্রিকেটে গত দুই যুগে অসামান্য প্রতিভা নিয়ে আসা দুজন ব্যাটসম্যানের কথা যদি বলতে হয়, তবে নিঃসন্দেহে চলে আসবে ওয়াসিম জাফর আর অমল মজুমদারের নাম। দ্বিতীয়জন অবশ্য জাতীয় দলে সুযোগই পাননি। ওয়াসিম জাফর সুযোগ পেলেও ভাগ্যের ফেরে বিশ্বক্রিকেটের বড় তারকাদের তালিকায় নিজের নামটি তুলে আনতে পারেননি।

দুর্দান্ত প্রতিভাধর, মেধাবী, ব্যাকরণসিদ্ধ ব্যাটিংয়ে সিদ্ধহস্ত হিসেবে ওয়াসিম জাফরের সুনাম ছিল। তবে এগুলোর মধ্যে তার সবচেয়ে বড় গুণ ছিল, লম্বা ইনিংস খেলতে পারার ধৈর্য্য। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে মাত্র দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নেমেই ডাবল সেঞ্চুরি পেয়ে গিয়েছিলেন মুম্বাইয়ের ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। ৩১ টেস্টের ক্যারিয়ারে ৫টি সেঞ্চুরির মধ্যে ডাবলই ছিল দুটি।

তারপরও ওয়াসিম জাফরের জাতীয় দলের ক্যারিয়ারটা বড় হয়নি। ২০০০ সালে মুম্বাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয়। সর্বশেষ টেস্ট খেলেন ২০০৮ সালে কানপুরে এই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেই। ৩৪.১০ গড়ে ১৯৪৪ রানে থেমেছে টেস্ট ক্যারিয়ার। দুটি ওয়ানডেও খেলেছেন, নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি (দুই ইনিংসে ১০ রান)।

তবে ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ওয়াসিম জাফরের নামটি আলাদা করেই লেখা থাকবে। ২৫৩টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ৫১.১৯ গড়ে করেছেন ১৯১৪৭ রান। সেঞ্চুরি ৫৭টি! লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটেও আছে ৪৭৪৫ রান। দুই ফরমেট মিলিয়ে প্রায় ২৫ হাজার রানের মালিক।

এমন একজন ব্যাটসম্যান বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেছেন আবাহনী লিমিটেডের হয়ে। চ্যাম্পিয়ন দলটির হয়ে চলতি মৌসুমেও ব্যাট হাতে মাঠ মাতিয়েছেন। এরই মধ্যে তার নাম চলে এলো কোচ হিসেবে।

হ্যাঁ, ভারতীয় এই ব্যাটসম্যানকে বাংলাদেশের ক্রিকেটে ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দেয়ার সিদ্ধান্ত প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছে বিসিবি। এখন শুধু আনুষ্ঠানিকতা বাকি। বাংলাদেশের ক্রিকেটটা তিনি বেশ ভালো বুঝেন, এমন একজন থাকলে দেশের ক্রিকেটের বড় উপকার হবে বলেই মনে করছেন বিসিবির কর্তারা।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »