বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

ব্রিটেন প্রবাসী বাঙালিদের সঙ্গে নিয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস পালন করেছেন ঢাকা বিশ্বিবিদ্যালয় অ্যালামনাই ইউকের নেতৃবৃন্দ।

গত শনিবার পূর্বলন্ডনের ব্রেডি আটর্স সেন্টারে ৪৯ তম মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনায় মুক্তিযুদ্ধে প্রবাসীদের ভূমিকা নিয়ে বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্বিবিদ্যালয় অ্যালামনাই ইন দ্যইউকের সভাপতি ব্যারিস্টার আনিস রহমান ওবিই, মাইগ্রেশন ভয়েজের চেয়ার হাবিব রহমান, ৭০ দশকের এমপি ডাকসুর সাবেক সদস্য সুবিদ আলী টিপু, চ্যানেল ফোরের সাংবাদিক বেকি হর্সব্রা।

চ্যানেল এস টেলিভিশনের সাংবাদিক তানভীর আহমেদ ও সংবাদপাঠিকা হিমিকা আযাদের উপস্থাপনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বাংলাদেশে হাইকমিশন লন্ডনের মিনিস্টার পলিটিক্যাল ডক্টর শ্যামল চৌধুরী, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুর রকীব এফসিএ, এসেক্স বিশ্বিবিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ডক্টর আবদুল হান্নান ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সংগঠনের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট দেওয়ান গউস সুলতান।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে দাতাদের সনদপত্র বিতরণ করেন সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মারুফ চৌধুরী ও সাবেক কোষাধ্যক্ষ সলিসিটর মোহাম্মদ কালাম। দাতাদের মধ্য থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সংগঠনের ৩৭ সদস্যবিশিষ্ট কার্যকরী পরিষদের সম্মানিত সদস্যদের পরিচয় করিয়ে দেন সংগঠনের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ও সাধারণ সম্পাদক।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ মুক্তি সংগ্রাম শিল্পী সংস্থার দলনেতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক মাহমুদুর রহমান বেনু, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এমদাদ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের লেকচারার ও ইউসিএল’র পিএইচডি গবেষক এস এম মঞ্জুর আল হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও ইম্পেরিয়াল কলেজের পিএইচডি গবেষক উত্তম কুমার, ডিজাস্টার সায়েন্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের লেকচারার ও ইউসিএল’র পিএইচডি গবেষক মোহাম্মদ ইজাজুল হক, সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাসন, সোয়াস ইউনিভার্সিটির সাবেক লেকচারার ও কমনওয়েলথ স্কলার রাজিয়া বেগম মান্নান ও চ্যানেল আই বাংলাদেশের সিনিয়র রিপোর্টার ও কমনওয়েলথ শেভেনিং স্কলার মশরুর শাকিল।

অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ শীর্ষক শিশুকিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় দুটি বিভাগে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার বিচারক শিল্পী কামরুল আহসান খান, শিল্পী শুভ্রা মুস্তাফা, শিল্পী এস এম আসাদ এবং চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার সম্বনয়কারী ঝুমুর দত্ত ও শায়লা শিমলা।

নৃত্য পরিবেশন করেন সোনিয়া সুলতানা, সোহেল আহমেদ, নন্দিনী ও লুজান। মুক্তিযুদ্ধে বীরাঙ্গনাদের ভূমিকা নিয়ে কবিতা আবৃত্তি করেন ছান্দসিকের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক মুনিরা পারভীন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে আবৃত্তি করেন সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক ব্যারিস্টার চৌধুরী হাফিজুর রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক মেসবাহ উদ্দীন ইকো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংগীত পরিবেশন করেন রীপা সুলতানা রকীব, শুভ্রা মুস্তাফা, নাদিয়া নিহাদ, ডক্টর শ্যামল চৌধুরী। আমন্ত্রিত শিল্পীদের মধ্যে সংগীত পরিবেশন করেন চ্যানেল এসের সংবাদ পাঠিকা তানজীনা-নূর-ই সিদ্দিকী, তামান্না ইকবাল ও প্রীতম সাহা। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন এবং সংগঠনের ২০১৯-২০২০ কার্য বছরের কমিটি পরিচিতি ছাড়াও শিল্পী এস এম আসাদের মুক্তিযুদ্ধের চিত্রকলা প্রদর্শনী তরুণ প্রজন্মের ব্রিটিশ বাংলাদেশিদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে আগ্রহ তৈরি করেছে।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্যসমূহ »

মন্তব্য করুন »