আনারসে ভোট চেয়ে বেড়াচ্ছেন মুন্সিগঞ্জের এমপি

মুন্সিগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলায় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এসএম মাহতাব উদ্দিন কল্লোলের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরনবিধি লংঘনের অভিযোগ করেছেন নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আনিস উজ্জামান আনিস।

বুধবার রাত ৮টায় মুন্সিগঞ্জ শহরের একটি রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলনে আনিস উজ্জামান আনিসের পক্ষে তার ছেলে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি জালাল উদ্দিন রুমি রাজন ও সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এমএ কাদের মোল্লা এ অভিযোগ করেন।

এ সময় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আনিস উপস্থিত না থাকলেও তার লিখিত অভিযোগপত্র পাঠ করে শোনান এমএ কাদের মোল্লা।

লিখিত অভিযোগপত্রে বলা হয়, আগামী ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী এসএম মাহতাব উদ্দিন কল্লোল আনারস প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। কিন্তু মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার আগে থেকেই মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস কল্লোলের পক্ষে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী কল্লোল নিজের নির্বাচনী পোস্টার ও ব্যানারে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাসের ছবি ব্যবহার করছেন বলে অভিযোগ করা হয়।

জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি জালালউদ্দিন রুমি রাজন তার বক্তব্যে বলেন, আমরা আট থেকে দশবার নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু এ পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

তিনি আরও বলেন, সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস ওয়াজ মাহফিল, বিভিন্ন স্কুল, ধর্মীয় অনুষ্ঠানে প্রত্যক্ষ পরোক্ষভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন। আমরা সংসদ সদস্যকে নির্বাচনের সময় মুন্সিগঞ্জে চাই না। তিনি যদি নির্বাচনের সময় মুন্সিগঞ্জে থাকেন তাহলে সমস্যা তৈরি হতে পারে।

তবে এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস।

জেলা নির্বাচন অফিসার আনিছুর রহমান জানান, দলীয় প্রার্থী ছাড়া অন্য কোনো স্বতন্ত্র প্রার্থী দলীয় কোনো ব্যানার বা দলের প্রধানের ছবি বা অন্য কিছু ব্যাবহার করতে পারবেন না।