আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপারের সুযোগ নেই

বিমানবন্দর

রাস্তা পারাপারের কোনো সুযোগ না থাকায় রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সামনের ফুটওভার ব্রিজটি বাধ্য হয়েই ব্যবহার করতে হচ্ছে পথচারীদের। ফলে এটি ব্যস্ততম ফুটওভার ব্রিজ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

মেট্রোরেলের কাজ চলায় বিমানবন্দরের সামনের সড়কের মাঝখানে বসানো হয়েছে দীর্ঘ টিনের বেড়া। এ বেড়া ডিঙিয়ে কারও পক্ষে রাস্তা পারাপার সম্ভব নয়।

স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মতে, সম্ভবত এটি ঢাকার সবচেয়ে ব্যস্ততম ফুটওভার ব্রিজ। সরেজমিন এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য মিলেছে।

গতকাল রোববার দুপুরে ফুটওভার ব্রিজটির এক পাশে পাঁচ মিনিট দাঁড়িয়ে এ প্রতিবেদক দেখতে পান, প্রতি মিনিটে ১৫ থেকে ২০ জন পথচারী ফুটওভার ব্রিজটি ব্যবহার করছেন। প্রতি মিনিটের হিসাবে গড়ে সারাদিনে প্রায় ২৫ হাজার পথচারী ফুটওভার ব্রিজটি ব্যবহার করেন।

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট

হেলাল নামে এক দোকানি বলেন, এ চিত্র নতুন নয়, মেট্রোরেলের কাজ শুরুর আগেও ফুটওভার ব্রিজটি ছিল ব্যস্ত। যদিও এখনকার মতো এত বেশি নয়। কয়েকদিন পরপর মেরামত করা হয় ব্রিজটি।

হেলাল জানান, অতিরিক্ত মানুষের ব্যবহারের কারণে ফুটওভার ব্রিজটিতে বিছানো স্টিল ক্ষয় হয়ে গেছে। যে কারণে ব্রিজটির সিঁড়ি থাকে পিচ্ছিল। অনেকে ব্রিজটিতে পড়ে আহত হন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রিজটির পাশে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ আলমগীর বলেন, এক বছর ধরে এখানে ডিউটি করি। অনেক মানুষ ফুটওভার ব্রিজটি ব্যবহার করেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অনেকে রাস্তার মাঝ দিয়ে যেতে চান কিন্তু প্রতিবন্ধকতা থাকায় সেটা সম্ভব হয় না।

আনোয়ার নামে এক কমিউনিটি পুলিশ সদস্য বলেন, বিমানবন্দরের সামনের এলাকাটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হাজার হাজার মানুষের চলাচল এখানে। সেই তুলনায় একটি ফুটওভার ব্রিজ যথেষ্ট নয়। চৌরাস্তার দুই পাশে দুটি ফুটওভার ব্রিজ জরুরি।

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট