বার্তাবাংলা ডেস্ক »

টেস্ট ক্রিকেট বা প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সাধারণত দল যখন সুবিধাজনক অবস্থায় থাকে, তখন অধিনায়ক সিদ্ধান্ত নেন ইনিংস ঘোষণা করা হয়। যাকে বলা হয়ে থাকে ইনিংস ডিক্লারেশন। কখনো সুবিধাজনক অবস্থানে না থাকলেও, ম্যাচ জমিয়ে তুলতে বা প্রতিপক্ষকে কঠিন চ্যালেঞ্জ জানানোর লক্ষ্যেও করা হয় ইনিংস ঘোষণা।

কিন্তু ম্যাচ হারার জন্য নিজেদের ব্যাটিং ছেড়ে দেয়ার কথা কি কেউ ভাবে? এমনটা যে অধিনায়ক করবে তার বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে উঠবে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঘরোয়া ক্রিকেট দলের অধিনায়ক রাখিম কর্ণওয়াল এ কাজ করে রীতিমতো দলের সবার কাছ থেকে প্রশংসাই গুনছিলেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড কর্তৃক আয়োজিত ৪ দিনের রেজিওনাল ক্রিকেট টুর্নামেন্টে ইচ্ছাকৃতভাবে হেরে যাওয়ার লক্ষ্যে বার্বাডোসের বিপক্ষে ৮ উইকেট হাতে রেখেই নিজেদের ইনিংস ঘোষণা করে দিয়েছে লিওয়ার্ড আইল্যান্ডস। তাদের মূল লক্ষ্য ছিলো প্রতিপক্ষকে বেশি বোনাস পয়েন্ট পেতে না দেয়া।

কিন্তু লিওয়ার্ডের পরিকল্পনা সফল হয়নি। তাদের ভুল হিসেবের সুযোগে ভগ্নাংশের ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই লিগ শেষ করেছে বার্বাডোস। আগেই নিশ্চিত ছিলো চ্যাম্পিয়ন হবে গায়ানা। লিওয়ার্ড ও বার্বাডোসের ম্যাচটি ছিলো দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত করার ম্যাচ।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে মাত্র ৯০ রানে অলআউট হয় লিওয়ার্ড। জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে বার্বাডোস। ১০১ রানে পিছিয়ে থেকে খেলতে নেমে ২ উইকেটে ৮৩ রান তুলতেই নিজ দলকে ডেকে নেন লিওয়ার্ড অধিনায়ক কর্ণওয়াল। ফলে ইনিংস ও ১৮ রানের ব্যবধানে জয় পায় বার্বাডোস।

ইনিংস ঘোষণার সময় লিওয়ার্ডের পক্ষ থেকে হিসেবে করা হয়েছিলো ম্যাচের ঐ পরিস্থিতিতে ইনিংস ঘোষণা করলে, তথা হেরে গেলেও বার্বাডোসের ওপরেই থাকবে তারা।

কিন্তু ম্যাচ শেষে আনুষ্ঠানিক হিসেবে দেখা যায় ১৭.৪ পয়েন্ট পেয়ে বার্বাডোসের পয়েন্ট দাঁড়ায় ১৩৪.২। অন্যদিকে একই ম্যাচে ২.৮ পয়েন্ট পেয়ে লিওয়ার্ড থামে ১৩৪ পয়েন্টে। ফলে ইচ্ছে করে ম্যাচ হেরেও দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত করা হয়নি লিওয়ার্ডের।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »