ভিসা চেক করবেন যেভাবে

কানাডা

ভিসা মানব জীবনের একটি প্রয়োজনীয় উপাদান। জীবনের তাগিদেই মানুষ এক দেশ থেকে অন্য দেশে ছুটে যায়। তখনই দরকার হয় ভিসার। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অনেকেই জানেন না কিভাবে ভিসার আবেদন করতে হয়। কী কী প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগে। যে কারণে অনেকেই শরণাপন্ন হন কোন না কোন ভিসা এজেন্ট বা ভিসা কনসাল্টিং ফার্মের।

যদি আপনাকে বলা হয়, আপনার পাসপোর্টে ভিসা স্টাম্পিং হয়েছে। কিন্তু ভিসাটি বৈধ না অবৈধ, তা কিভাবে চেক করবেন? আসুন আজ জেনে নেই যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়ার ভিসা কিভাবে চেক করতে হয়।

প্রথমেই আপনাকে ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব স্টেটের (ceac.state.gov/ceac/) কনস্যুলার ইলেক্ট্রনিক অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারে যেতে হবে। সেখানে উপরে নন-ইমিগ্রান্ট ও নিচে ইমিগ্রান্টের অপশন আছে। ইমিগ্রান্ট ও নন-ইমিগ্রান্ট দু’টিতেই ‘চেক মাই ভিসা অ্যাপ্লিকেশন স্ট্যাটাস’ আছে। চেক মাই ভিসা অ্যাপ্লিকেশন স্ট্যাটাসে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য (অ্যাপ্লিকেশন আইডি) দিয়ে আপনার ভিসা চেক করে নিতে পারেন। তাছাড়া ই-মেইল (DhakaVisaSupport@state.gov) করেও ভিসাটি বৈধ না অবৈধ তা জেনে নিতে পারেন।

কানাডার ভিসা চেক করার সরাসরি কোন পদ্ধতি নেই যেমনটি আমেরিকার আছে। তবে আপনার অ্যাপ্লিকেশন স্ট্যাটাস জানতে পারবেন অনলাইন ট্র্যাকিং পদ্ধতির মাধ্যমে। আর তা হলো- প্রথমেই আপনাকে ভিএফএস গ্লোবাল, কানাডা এরপর বাংলাদেশ সিলেক্ট করলে তাদের ওয়েবসাইট (www.vfsglobal.ca/Canada/bangladesh) দৃশ্যমান হবে। ওয়েবসাইটের হেডিংয়ে ‘ট্র্যাক ইওর অ্যাপ্লিকেশন’ নামে একটি অপশন আছে। ট্র্যাক ইওর অ্যাপ্লিকেশনে ক্লিক করলে প্রয়োজনীয় তথ্য (ট্র্যাকিং আইডি ও জন্মতারিখ) দিয়ে আপনার ফাইলের আপডেট জানতে পারেন।

আপনার ভিসা বৈধ কি-না তা আপনি ২টি উপায়ে জানতে পারবেন। প্রথমটি হলো- পাসপোর্ট ভিএফএস থেকে ডেলিভারি নেওয়ার পর। আর দ্বিতীয়টি হলো- কানাডা হাইকমিশন, সিঙ্গাপুরে ই-মেইল (spore@international.gc.ca) করে আপনার ভিসাটি বৈধ কি-না তা জেনে নিতে পারেন।

কানাডার মতো অস্ট্রেলিয়ার ভিসা চেক করার সরাসরি কোন পদ্ধতি নেই। অস্ট্রেলিয়ার ভিসা হলো ইলেক্ট্রনিক ভিসা। এটি স্টিকার ভিসা নয়। তবে আপনি অ্যাপ্লিকেশন স্ট্যাটাস জানতে পারবেন অনলাইন ট্র্যাকিং পদ্ধতির মাধ্যমে। আর প্রথমেই আপনাকে ভিএফএস গ্লোবাল, অস্ট্রেলিয়া এরপর বাংলাদেশ সিলেক্ট করলে তাদের ওয়েবসাইট (www.vfsglobal.com/Australia/Bangladesh) দৃশ্যমান হবে। ওয়েবসাইটের হেডিংয়ে ‘ট্র্যাক ইওর অ্যাপ্লিকেশন’ নামে একটি অপশন আছে। ট্র্যাক ইওর অ্যাপ্লিকেশনে ক্লিক করলে প্রয়োজনীয় তথ্য (ভিএলএন নম্বর ও জন্মতারিখ) দিয়ে আপনার ফাইলের আপডেট জানতে পারবেন।

আপনার ভিসা বৈধ কি-না তা আপনি ২টি উপায়ে জানতে পারবেন। প্রথমটি হলো- পাসপোর্ট ভিএফএস থেকে ডেলিভারি নেওয়ার পর। আর দ্বিতীয়টি হলো- অস্ট্রেলিয়া হাইকমিশন, ভারতে ই-মেইল (ahc.newdelhi@dfat.gov.au) করে ভিসাটি বৈধ কি-না তা জেনে নিতে পারেন।