আমীর হোসেন »

Dating App

প্লাস্টিক দূষণ সামুদ্রিক প্রাণিদের হুমকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে। করোনা দুর্যোগের সময় স্থলভাগের প্রকৃতিতে ইতিবাচক পরিবর্তন এলেও সমুদ্রে প্লাস্টিক জমা হওয়ার পরিমাণ বেড়ে গেছে।
বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ইন্টারন্যাশনাল সলিড ওয়েস্ট অ্যাসোসিয়েশনের একটি গবেষণা রিপোর্ট বলছে, সঠিক পদক্ষেপ না নিলে আগামী ২০ বছরে সমুদ্রে আবর্জনার স্তূপের পরিমাণ ও প্রাণহানির সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে তিনগুণ।

সমুদ্রবক্ষে দিনে দিনে বাড়ছে প্লাস্টিকের স্তুপ। ইন্টারন্যাশনাল সলিড ওয়েস্ট অ্যাসোসিয়েশনের এক গবেষণা বলছে, করোনা সঙ্কটে ওয়ানটাইম মাস্ক ও গ্লাভস জমছে এশিয়ার বিভিন্ন সমুদ্র সৈকতে। এছাড়া খাবার ও অনলাইনে কেনা পণ্যের প্যাকেটও সামিল হয়েছে এই আবর্জনার স্তূপে।

গবেষণা বলছে, এভাবে চলতে থাকলে প্রতি বছর সাগরে ফেলা প্লাস্টিকের পরিমাণ ১ কোটি ১০ লাখ টন থেকে বেড়ে ২ কোটি ৯০ লাখ টনে পৌঁছুবে। আর ২০৪০ সালে তা বেড়ে তিন গুণ হবে, প্রায় ৩০ লাখ নীল তিমির ওজনের সমান।

বিপদ এড়াতে বিভিন্ন দেশে আইন প্রয়োগে কড়াকড়ি করা হলেও সমীক্ষা বলছে যে, এইরকম ঢিলেঢালা নিষেধাজ্ঞা চলতে থাকলে ২০৪০ সালে প্লাস্টিক জমা হওয়ার পরিমাণ মাত্র ৭% কমানো সম্ভব হবে।

পিউ চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এবং সিস্টেমআইকিউ-এর সমীক্ষা বলছে, সাগরে প্লাস্টিক জমা হওয়া ৮০% কমাতে হলে কাগজ জাতীয় প্যাকেটের ব্যবহার বাড়াতে হবে এবং যত বেশি সম্ভব পুনরায় ব্যবহারযোগ্য উপাদান ব্যবহার করতে হবে।

অন্যদিকে ব্রেক ফ্রি ফ্রম প্লাস্টিক নামে একটি স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনের প্রধান ভন হার্নান্দেজ প্লাস্টিকের পুনরায় ব্যবহারের বিরোধিতা করেন, কারণ সেটা করার সময়ও কার্বণ ডাই অক্সাইড নিঃসরিত হয়।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »