ইয়াসমিন লিপি »

Dating App

সহকারী রেজিস্ট্রার শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে প্রতারণার সব তথ্য প্রমাণ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

নকল এন নাইন্টি ফাইভ মাস্ককাণ্ডে গ্রেপ্তার শারমিন জাহান। প্রশাসনিক এ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এখন উঠছে সে প্রশ্ন। কারণ ইতিমধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য পুরো ব্যাপারটি খতিয়ে দেখতে একজন রেজিস্ট্রারকে দায়িত্ব দিয়েছেন। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছেও তথ্য প্রমাণ চাওয়া হয়েছে।

সহকারী রেজিস্ট্রার শারমিন ২০১৬ সাল থেকে শিক্ষা ছুটিতে আছেন। করোনা মহামারির কারণে চীন থেকে দেশে ফিরে পরিচালনা করছিলেন অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল। মাস্ক সরবরাহের চুক্তিতেও নিজেকে প্রতিষ্ঠানটির স্বত্ত্বাধিকারী হিসেবে দেখিয়েছেন।

এদিকে শনিবার ঢাকা মহানগর হাকিম মইনুল ইসলামের আদালত তাকে তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে শারমিনকে আদালতে হাজির করা হয়। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রমনা জোনাল টিমের পুলিশ পরিদর্শক শাহ মো. আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস আদালতে তার তিন দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। শুনানি শেষে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে গতকাল শুক্রবার রাত সোয়া ১০টার দিকে রাজধানীর শাহবাগ এলাকা থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা ও অপরাধ তদন্ত বিভাগ (ডিবি) তাঁকে গ্রেপ্তার করে। তিনি মামলা হওয়ার পর থেকেই পলাতক ছিলেন।

এর আগে নকল মাস্ক সরবরাহের দায়ে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে মামলা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষ। গত বৃহস্পতিবার রাতে বিএসএমএমইউয়ের প্রক্টর বাদী হয়ে তাকে প্রধান আসামি করে এই মামলা করেন।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, বিএসএমএমইউ হাসপাতালে মাস্ক সরবরাহের অনুমতি পায় শারমিন জাহানের প্রতিষ্ঠান অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি নকল মাস্ক সরবরাহ করে। এই মাস্ক ব্যবহার করে চিকিৎসক ও রোগী ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। একই সঙ্গে নকল মাস্ক সরবরাহ করে প্রতিষ্ঠানটি বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »