মোহাম্মদ কামরুজ্জামান »

Dating App

তিনটি ওয়েব সিরিজের অশ্লীলতা নিয়ে বিতর্ক আর থামছে না। সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বেশির ভাগ কর্মীই এসব সিরিজের বিরুদ্ধে মুখর হয়ে উঠেছেন। ওয়েব সিরিজ তিনটি হলো- ওয়াহিদ তারিকের ‘বুমেরাং’, সুমন আনোয়ারের ‘সদরঘাটের টাইগার’ ও শিহাব শাহীনের ‘আগস্ট ১৪’। অভিনয় করেছেন আজাদ আবুল কালাম, মৌটুসী বিশ্বাস, শ্যামল মওলা, হিল্লোল, ইমি, অর্ষা, তাসনুভা তিশা, ফারহানা হামিদ, আবু হুরায়রা তানভীরসহ অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী। চলচ্চিত্রকার অহিদুজ্জামান ডায়মণ্ড বলেছেন, একটি দেশের সংস্কৃতি এবং সে দেশের সমাজ ব্যবস্থা কখনোই একজন নির্মাতা বা ক’জন অভিনয় শিল্পীর দৃষ্টিতে সীমাবদ্ধ নয়।

তাদের ক’জোড়া চোখই কোটি মানুষের চোখ নয়। উন্মুক্ত নারীদেহ আর অর্থ আয়ে আসক্ত হয়ে সমাজের গুটি কয়েক মানুষ এক সময় নানা যুক্তি উপস্থাপন করে দর্শক চাহিদার কথা বলে দর্শকের কাঁধে দোষের জোয়াল চাপিয়ে- রাজা সন্যাসী, কাঁচের দেয়াল, সীমানা পেরিয়ে, নবাব সিরাজউদ্দৌলার মত নির্মিত চলচ্চিত্রের দেশকে বানিয়ে ছিল অশ্লীল চলচ্চিত্রের স্বর্গরাজ্য। সুগ্রীপ কোর্টের একজন আইজীবি সিরিজগুলো থেকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে অশ্লীল দৃশ্য ছেঁটে ফেলার জন্য উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন।

সরকার থেকেও বলা হয়েছে, এসব সিরিজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে বুমেরাং ছবিটি একজন ইউটিউবে দেখার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি বলেছেন, ছবিটি ব্লক করা আছে। এ ব্যাপারে শিল্পী সংঘের সভাপতি শহিদুজ্জামান সেলিম বলেন, ‘বিষয়টির দিকে সরকারই নজর দিয়েছে। আমাদের আর কিছু করার নেই। তারপরও আমরা সংগঠনের পক্ষ থেকে তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। যা পরিবার নিয়ে দেখা যায় না, সামাজিকভাবে আমাদের হেয় প্রতিপন্ন করে তা আর ভবিষ্যতে যাতে করা না হয়, সেজন্য তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। তবে ওয়েব সিরিজগুলো এক সপ্তাহ আগে থেকেই ব্লক আছে।’ এরপরও কিছু সাংস্কৃতিক কর্মী এসব সিরিজে অংশগ্রহণকারী শিল্পীদের নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছেন। এ ব্যাপারে 

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »