মোহাম্মদ কামরুজ্জামান »

Dating App

নতুন প্রেমে জড়িয়েছেন পিএসজির ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমারের মা নাদিন গনকালভেস। ৫২ বছর বয়সী নাদিন ২২ বছর বয়সী এক তরুণের সঙ্গে প্রেমে মশগুল। বয়সে নেইমারের থেকেও ছয় বছরের ছোট ওই তরুণ প্রেমিক। সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলাও করে ভালোবাসার কথা জানিয়েও ছিলেন নাদিন গনকালভেস! মায়ের এই প্রেম কাহিনী নিয়ে অবশ্য কোনো আপত্তি ছিল না নেইমারের।

কিন্তু তাঁর বয়ফ্রেন্ডকে এমন মন্তব্য করে বসলেন তিনি, যা সাও পাওলোয় রীতিমতো শোরগোল ফেলে দিল। সমকামী সমর্থকরা তেড়ে এলেন ব্রাজিলীয় এই পোস্টার বয়ের দিকে! এমনকি তাঁর বিরুদ্ধে অপরাধমূলক মামলাও দায়েরেরও পরিকল্পনা করছেন!

প্রশ্ন হলো, কী এমন মন্তব্য বললেন পিএসজি স্ট্রাইকার নেইমান, যার জন্য এভাবে ক্ষোভের আগুন জ্বলে উঠল?

সমকামী সমর্থনকারী সমাজকর্মী অ্যাগ্রিপিনো জানান, একটি গেমিং সাইট থেকে বন্ধুদের সঙ্গে নেইমারের কথোপকথনের অডিও ফাঁস হয়ে যায়। যেখানে তিনি সমকামী ও সমকামিতা নিয়ে কটাক্ষ করেছেন।

সমকামীদের নিয়ে হাসাহাসিও করেছেন। আর সেই প্রসঙ্গেই উল্লেখ করেছেন মায়ের বয়ফ্রেন্ড টিয়াগো ব়্যামোসের নাম। সেই কথোপকথন ফাঁস হতেই নেইমারের প্রতি ক্ষোভ উগরে দেন সমাজসেবীরা। তারকা স্ট্রাইকার ও তাঁর বন্ধুদের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক অভিযোগ দায়ের করার পরিকল্পনা করছেন বলেও জানান অ্যাগ্রিপিনো।

এদিকে সাও পাওলোর প্রসিকিউটর অফিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই তারা নেইমারের বিরুদ্ধে সমকামিতা নিয়ে কটাক্ষের অভিযোগ পেয়েছেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বছর চারেক আগে ২৫ বছরের বিবাহিত জীবনের ইতি টেনেছিলেন নেইমারের বাবা-মা। তারপর গত এপ্রিলেই নাদিন নিজের ব্যক্তিগত জীবনের কথা ফাঁস করেন নেটদুনিয়ায়। জানান, টিয়াগোর সঙ্গে ডেটিং করছেন তিনি। যিনি গেমারের পাশাপাশি মডেলিংও করেন। বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে ভালোবাসার আলিঙ্গনের ছবিও পোস্ট করেন নাদিন। এই সম্পর্কে নিয়ে নেইমারের কোনো মাথা ব্যথা ছিল না।

তবে সম্প্রতি নেইমার জানতে পারেন, তাঁর মা ও টিয়াগোর সঙ্গে বেশ বড় ধরনের ঝামেলা হয়। চোট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় টিয়াগোকে। সেই প্রসঙ্গেই বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনা করতে গিয়ে নেইমার বলেন, টিয়াগো উভকামী। আর তখনই সমকামীদের কটাক্ষ শোনা যায় নেইমারের মুখে। যদিও পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার পর এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি ফুটবল তারকা। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »