বার্তাবাংলা ডেস্ক »

bnp fakrulবার্তাবাংলা ডেস্ক :: মুক্তি পাওয়ার পর বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সব নেতাকর্মীদের অবিলম্বে ছেড়ে না দিলে আন্দোলন আরো তীব্র হবে। সেই সঙ্গে পুলিশ নিজেই বিএনপি কার্যালয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য রেখেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।
মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে ডিবি কার্যালয় থেকে ছাড়া পান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা এবং ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী।
ছাড়া পাওয়ার পর দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে ব্রিফিং করেন ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব।
সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার জনমতের চাপে তাকেসহ আরো দুই নেতাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে।সোমবার বিএনপি কার্যালয় থেকে ককটেল উদ্ধার বিষয়ে ফখরুল বলেন, ‘পুলিশ ককটেল জাতীয় জিনিস নিজেরা রেখে এখন বলছে যে এগুলো আমরা কার্যালয়ে রেখেছি।’
‘কার্যালয়ে বিস্ফোরক রাখার কোনো কারণই আমাদের নেই। আমরা একটি গণতান্ত্রিক দল। আমরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাস করি।’
বিরোধীদলীয় হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক এখনও ডিবি কার্যালয়ে অবস্থান করছেন। সোমবার বিকালে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ১৮ দলের সমাবেশের শেষ দিকে হঠাৎ কয়েকটি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটে। এর পরপরই বিএনপি কর্মীরা পুলিশের দিকে ঢিল ছুড়তে থাকে এবং সমাবেশ পণ্ড হয়ে যায়।
তাৎক্ষণিকভাবে মঙ্গলবার সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ঘোষণা দেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
এর ঘণ্টাখানেক পর বিএনপি কার্যালয় থেকে ফখরুল, সাদেক হোসেন খোকা, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, রুহুল কবির রিজভী, জয়নুল আবদিন ফারুকসহ শতাধিক নেতা-কর্মীকে আটক করে পুলিশ।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »