বার্তাবাংলা ডেস্ক »

উবারে ছয় কিলোমিটার যাত্রা করার পর ভারতের বেঙ্গালুরুতে এক যাত্রীর হাতে বিল ধরিয়ে দেয়া হয় পাঁচ হাজার তিনশ বায়ান্ন টাকা। বিল হাতে নিয়ে আঁতকে উঠেন প্রবীণ নামের ওই যাত্রী। তিনি নেমে যেতে চাইলেও বিলের পুরো টাকা দিতে হবে বলে দাবি জানান উবার ক্যাবের চালক। তাড়াতাড়ি গন্তব্যে পৌঁছতে গিয়ে উবার ভাড়া করে চরম বিপাকে পড়েন ওই যাত্রী।

প্রবীণ বেঙ্গালুরু সিটি রেলওয়ে স্টেশন থেকে মাইসোর রোড স্যাটেলাইট বাস স্টপেজ পর্যন্ত একটি উবার ভাড়া করেন। যাত্রা শেষে তাকে ধরিয়ে দেয়া হয় ওই বিল। তিনি ওই বিল হাতে নিয়ে অবাক। হতভম্ব হয়ে যান।

তিনি বলেন, আমার তাড়াতাড়ি মাইসোর যাওয়ার প্রয়োজন ছিল। সাড়ে তিনটার ট্রেন ধরেত না পেরে তিনি উবার ভাড়া করেন। সাড়ে চারটা নাগাদ ওই উবার ক্যাবে ওঠেন তিনি। মাইসোর বাস স্টপেজে নামার সময় চালক তার ডিভাইস থেকে একটি বিল বের করে দেন, যাতে লেখা ৫,৩৫২ টাকা। চালককে জিজ্ঞাসা করতে তিনি জানান, বর্তমান ভাড়া ১০৩ টাকা। বাকিটা আগের বকেয়া।

All Media Link

প্রবীণ আরো বলেন, আমি বিশ্বাসই করতে পারছিলাম না। তার কারণ আমি দু`বছরে মাত্র দু`বার উবার ক্যাব ব্যবহার করেছি। তাহলে আমার ভাড়া বকেয়া হয় কী করে! ওই যাত্রী চালককে বলেন, নিশ্চয় কোনও প্রযুক্তিগত সমস্যা হচ্ছে। আমি ১০৩ টাকাই দেব। চালক জানায়, আমার কিছু করার নেই। এই টাকা আপনি না দিলে আমার অ্যাকাউন্ট থেকে তা কেটে নেয়া হবে। এরপরও প্রবীণ টাকা না দেয়ায় পুলিশ কন্ট্রোল রুমে ফোন করেন চালক। থানায় গিয়ে তিনি পুরো বিষয়টি বলেন। দায়িত্বরত পুলিশ পুরো বিষয়টি শোনে চালককে ১০৩ টাকা ভাড়া নিতে বলেন। প্রকৃত অর্থেই বিল হয়েছে ১০৩ টাকা। কিন্তু ৫,৩৫২ টাকার বিলটি ভুয়া। প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণেই তা হয়েছে!

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

বার্তাবাংলা ডেস্কে আপনাকে স্বাগতম। বার্তাবাংলা (BartaBangla.com) প্রথম সারির একটি অনলাইন গণমাধ্যম; যেটি পরিচালিত হচ্ছে ইউরোপ এবং বাংলাদেশ থেকে। বার্তাবাংলা ডেস্কে রয়েছে নিবেদিতপ্রাণ তরুণ একঝাঁক সংবাদকর্মী। ২০১১ সালে যাত্রা ‍শুরু করা এই অনলাইন পত্রিকাটি এরই মধ্যে পেয়েছে ব্যাপক পাঠকপ্রিয়তা। দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা লাখো পাঠকই আমাদের পথচলার পাথেয়।

মন্তব্য করুন »