বার্তাবাংলা ডেস্ক »

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল শনিবার ভারতের হায়দরাবাদ হাউসে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন। এখানে ছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুই বাঙালির উপস্থিতির কারণেই মধ্যাহ্নভোজের তালিকায় ছিল বাঙালি ছোঁয়া।

পশ্চিমবঙ্গের শীর্ষ দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্য খাবারের তালিকায় ছিল গন্ধরাজ লেবু দিয়ে ভেটকির পদ ও মুরগির মাংস। আর নিরামিষাশী মোদির জন্য ছিল লুচি, বেগুনভাজা ও পটোলভাজা।

এবারের ভারত সফরে নয়াদিল্লিতে রাষ্ট্রপতি ভবনে থাকছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির আতিথ্যে আছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশের নড়াইলের জামাই ভারতের রাষ্ট্রপতি ও তাঁর প্রিয় ‘প্রণবদার’ জন্য দু-দশটা নয়, তি-রি-শ কেজি ইলিশ নিয়ে দিল্লি গেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

All Media Link

তবে ভারত সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আপ্যায়নের তালিকায় সুস্বাদু ইলিশ মাছ থাকছে না। কারণ, এই শেষ চৈত্রে ভালো টাটকা ইলিশ নেই। বাজারে ইলিশের মন্দা। যা আছে, তা-ও আকারে ছোট। আর না হয় ফ্রিজে রাখা বিস্বাদ মাছ। আনন্দবাজার বলছে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্য রাষ্ট্রপতি ভবনে খাবারের তালিকায় থাকছে ভেটকির পাতুরি, চিংড়ির মালাইকারি আর চিতল–পেটির মুইঠ্যা। রকমারি মাছের পাশাপাশি মুর্গ দরবারি, গোশত ইয়াখনি, রাইজিনা কোফতা ও আলু বুখারার মতো উত্তর ভারতের বিশেষ পদগুলোও থাকছে। শেষ পাতে অবশ্যই রাজভোগ।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

বার্তাবাংলা ডেস্কে আপনাকে স্বাগতম। বার্তাবাংলা (BartaBangla.com) প্রথম সারির একটি অনলাইন গণমাধ্যম; যেটি পরিচালিত হচ্ছে ইউরোপ এবং বাংলাদেশ থেকে। বার্তাবাংলা ডেস্কে রয়েছে নিবেদিতপ্রাণ তরুণ একঝাঁক সংবাদকর্মী। ২০১১ সালে যাত্রা ‍শুরু করা এই অনলাইন পত্রিকাটি এরই মধ্যে পেয়েছে ব্যাপক পাঠকপ্রিয়তা। দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা লাখো পাঠকই আমাদের পথচলার পাথেয়।

মন্তব্য করুন »