ভোরে ঘুম থেকে ওঠার ৫ উপায় » Leading News Portal : BartaBangla.com

ইসরাত পুনম »

রাতজাগা মানুষের সংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে। অফিসের কাজ, ইন্টারনেট ব্রাউজিং ইত্যাদি নিয়ে রাত প্রায় শেষ করে ঘুমাতে যান অনেকেই। তারা সকালের কিছুতেই ঘুম থেকে উঠতে পারেন না। সময়মতো অফিস ধরতে পারেন না।

আপনার জন্য রয়েছে কয়েকটি টিপস। দেখে নিন, একটু কষ্ট করে মেনে চললেই আরলি রাইজার হয়ে যাবেন।

১. কখন উঠতে চান আগে সেটা ঠিক করুন। আপনি হয়তো সকাল ৭টায় উঠতে চান কিন্তু রাতে ভাবলেন সাড়ে ৬টায় উঠলে ভালো হয়। এমন ভাবনাই ভুল। যখন উঠতে চান, সেটাই চিন্তা করে রাখুন। অবচেতন মন কোনোভাবে দ্বিধায় থাকলে আপনার ঘুমে ব্যাঘাত ঘটবে। দেখবেন হয়তো ৬টায় ওঠার জায়গায় আপনার ৪টায় ঘুম ভেঙে গেল। তখন আবার ঘুমোলেন, আর উঠলেন অনেক পরে।

All Media Link

২. পরদিন সকালে তাড়াতাড়ি উঠতে হবে বলে ঘুমোতে যাওয়ার আগে মনের ওপর অতিরিক্ত চাপ দেবেন না। বারবার যদি ভাবেন কাল সকালে তাড়াতাড়ি উঠতে হবে, কাল সকালে তাড়াতাড়ি উঠতে হবে তাহলে ঘুমে ব্যাঘাত ঘটবে। ঘুমোতে দেরি হবে, আর পরদিন তাড়াতাড়ি ওঠার সব পরিকল্পনা ভেস্তে যাবে।

৩. সকালে যেন ঘরে সূর্যের আলো বা রোদ এসে পড়ে সম্ভব হলে সেই ব্যবস্থা করুন। ঘর যত অন্ধকার রাখবেন, ঘুম থেকে উঠতে তত দেরি হবে।

৪. প্রতিদিন ঘুম থেকে ওঠার একটা নির্দিষ্ট রুটিন তৈরি করুন। যাদের শিফিটিং ডিউটি অর্থাৎ আজ সকাল, কাল দুপুর, পরশু রাত, এমন ধরনের ডিউটি থাকলে চেষ্টা করুন প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট সময়ে ঘুম থেকে উঠতে। আজ কাজ আছে বলে তাড়াতাড়ি উঠব, কাল নেই বলে একটু বেশি ঘুমিয়ে নিই। এই নিয়ম তৈরি না করাই ভাল।

৫. অ্যালার্ম ক্লক বা ফোনের অ্যার্লাম টোন কিন্তু ঘুম থেকে সঠিক সময়ে ওঠার একটা বড় অস্ত্র। ধরুন অ্যালার্ম টোনটা খুব চড়া আর তীব্র। শুনেই আপনার খারাপ লাগছে। এমন অ্যালার্মে আপনার ঘুম ভাঙবে ঠিকই কিন্তু একটু নড়াচড়া করে আবার ঘুমিয়ে পড়বেন।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

আমি ইসরাত পুনম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেছি। পড়াশোনার পাশাপাশি লেখালিখি করছি প্রায় চার বছর ধরে। বার্তাবাংলা’য় কাজ করছি লাইফস্টাইল সম্পাদক হিসেবে। আমার বিশেষ আগ্রহের ক্ষেত্র ফিচার, প্রযুক্তি আর লাইফস্টাইল। খুব ভালো লাগে ভ্রমণ, বইপড়া, আর ইন্টারনেট নিয়ে পড়ে থাকা :)

মন্তব্য করুন »