বার্তাবাংলা ডেস্ক »

15_BP2+Final+Dhaka+vs+Chittagong+roy+bold+190213বার্তাবাংলা ডেস্ক ::দ্বিতীয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ফাইনালে চট্টগ্রাম কিংসকে ৪৩ রানে হারিয়েছে গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স।

শনিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেটে ১৭২ রান করে ঢাকা। জবাবে ১৬ ওভার ৫ বলে ১২৯ রানে অলআউট হয়ে যায় চট্টগ্রাম।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ২৮ বলে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জেসন রয়ের ৪০ রানের আক্রমণাত্মক ইনিংসের পরও ১০ ওভারে ৭০ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে চট্টগ্রাম।

দুই অঙ্কের ঘরেই পৌঁছাতে পারেন নি শেহান জয়াসুরিয়া (৫), রবি বোপারা (২) ও রায়ান টেন ডোসকাটে (২)।

All Media Link

এরপরও চট্টগ্রামের স্বপ্ন টিকিয়ে রেখেছিলেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। সতেরতম ওভারের প্রথম বলে আলফানসো টমাসের ‘স্লোয়ারে বিভ্রান্ত হওয়ার আগে ৪৪ রান করেন তিনি। তার ২৮ বলের ইনিংসে ৩টি করে ছক্কা ও চার।

দলীয় ১২৭ রানে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে মাহমুদুল্লাহর বিদায়ের তিন বলের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় চট্টগ্রামের ইনিংস।

ঢাকার পক্ষে টমাস (৩/১৯) ও মোশাররফ হোসেন (৩/২৬) তিনটি করে উইকেট নেন। ফাইনালের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন বাঁহাতি স্পিনার মোশাররফ।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই তিলকারত্নে দিলশানের (২) বিদায়ে ঢাকার শুরুটা ভালো হয় নি। তবে দ্বিতীয় উইকেটে মোহাম্মদ আশরাফুলের সঙ্গে এনামুল হক বিজয়ের ৪৪ রানের জুটি শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে স্বস্তি ফেরায় ঢাকা শিবিরে।

ব্যক্তিগত ১৯ রানে রুবেল হোসেনের বলে ফাইন লেগে তাসকিন আহমেদের হাতে জীবন পাওয়া আশরাফুল নিজের ইনিংসকে বেশি বড় করতে পারেন নি। দিলহারা লুকুহেটিগের বলে মিড উইকেটে শেহান জয়াসুরিয়ার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেয়ার আগে ২৪ রান করেন তিনি।

তৃতীয় উইকেটে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে ৪৮ রানের আরেকটি চমৎকার জুটি দলকে উপহার দেন বিজয়। অর্ধশতকে পৌঁছানোর পর বিজয় (৫৮) বিদায় নিলে ভাঙ্গে বিপজ্জনক হয়ে উঠা জুটি। বিজয়ের ৩৬ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ২টি ছক্কা।

দলকে দেড়শ পর‌্যন্ত নিয়ে যাওয়ার পর বিদায় নেন সাকিবও। ২৯ বলে দুটি করে ছক্কা ও চারে ৪১ রান করা সাকিব জীবন পেয়েছেন দুবার। ব্যক্তিগত ২৩ রানে রুবেলের বলে উইকেটরক্ষক নুরুল হাসানকে সহজ ক্যাচ দিলেও তিনি সুযোগ কাজে লাগাতে পারে নি। দিলহারার বলে ৩৪ রানে রবি বোপারার হাতেও একবার জীবন পান তিনি।

সাকিবের বিদায়ের পর দ্রুত উইকেট হারানোয় শেষ দিকে বেশি রান সংগ্রহ করতে পারেনি ঢাকা।

৪৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে চট্টগ্রামের সেরা বোলার রুবেল। এছাড়া তাসকিন ও দিলহারা দুটি করে উইকেট নেন।

সাংবাদিকদের ভোটে টুর্নামেন্টের সেরা উদীয়মান ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেছেন ১২ ম্যাচে ৬টি অর্ধশতকসহ ৪২১ রান করা শামসুর রহমান শুভ।

প্রথম আসরের মতো দ্বিতীয় আসরেও টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার উঠেছে সাকিবের হাতে।

চ্যাম্পিয়ন ঢাকা পেয়েছে ৫ কোটি এবং রানার্সআপ চট্টগ্রাম পেয়েছে ৩ কোটি টাকা।

প্রথম আসরে বরিশাল বার্নার্সকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল ঢাকা।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »