বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Fiji-bg20130219021157বার্তাবাংলা ডেস্ক ::ভিন্নমতের ১৪টি রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করছে ফিজির সামরিক সরকার। দেশটির মোট ১৭টি রাজনৈতিক দলের মধ্যে সামরিক সরকারের মিত্র হিসেবে তিনটি দলের নিবন্ধন রেখে বাকি দলগুলোকে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।

দেশটির সামরিক সরকার দাবি করেছে, “নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় আইন মানতে না পারায় এ দলগুলোকে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।”

প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের এ দ্বীপ রাষ্ট্রে ২০০৬ সালের সেনাঅভ্যুত্থানের পর আগামী বছরের ‘গণতান্ত্রিক’ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবে সামরিক সরকারের মিত্র তিনটি দল।

All Media Link

দেশটির নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা মেরে বুনিওয়াকা দাবি করেন, “নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রদর্শন করতে না পারায় তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধ করা হচ্ছে। বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছে তাদের দলীয় সম্পদ ও কার্যালয়।”

তবে, সরকারের এ সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে প্রতিবেশি দেশ অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বব কার বলেছেন, “এ সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়া কঠিন এবং অবিবেচনাপ্রসূত।” এ সময় পরবর্তী নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে অস্ট্রেলিয়া সরকারের উদ্বেগের কথাও জানান কার।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালের সেনা অভ্যুত্থানের পর অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত ভোরেক বাইনিমারমা প্রাথমিকভাবে অঙ্গীকার করেছিলেন ২০০৯ সালের মধ্যেই সকল দলের অংশগ্রহণে একটি গণতান্ত্রিক নির্বাচন সম্পন্ন করবেন। কিন্তু সামরিক শাসনবান্ধব একটি অধ্যাদেশ জারি করে দাবি করা হয়, “ফিজি এখনো গণতন্ত্রের জন্য প্রস্তুত নয়।”

সরকারের এ সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে গণতন্ত্রের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন দেশটির সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »