বার্তাবাংলা ডেস্ক »

599_image_978_240205বার্তাবাংলা ডেস্ক ::আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি গণপদযাত্রা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। ওই দিন বিকেল তিনটায় সভারের হেমায়েতপুর থেকে সাভার বাজার, টঙ্গী বাটা বাজার থেকে আবদুল্লাহপুর এবং নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত এ গণপদযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।
এতে জোটের নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় নেতারাও অংশ নেবেন।
যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে আজ মঙ্গলবার জোটের ঢাকা মহানগর কমিটি এ কর্মসূচি ঘোষণা করে।
বেলা ১১টায় গুলিস্তানে জাসদের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের কর্নেল তাহের মিলনায়তনে ১৪ দলের ঢাকা মহানগর কমিটির এক বৈঠক হয়। সেখানে জোটের মহানগর কমিটির সমন্বয়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে ১৪ দলের অন্যতম শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফসহ অন্যান্য শরিক দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
মতিয়া চৌধুরী বলেন, শাহবাগের আন্দোলনের মধ্য দিয়ে নতুন প্রজন্ম কলঙ্কমোচনের দায় কাঁধে তুলে নিয়েছে। বেগম খালেদা জিয়াকে ‘জামায়াতের মহিলা আমির’ আখ্যা দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘যতই চেষ্টা করেন না কেন, যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দিয়ে বিজয় ছিনিয়ে আনব।’
বিএনপির নেতা মওদুদ আহমদের উদ্দেশে মতিয়া চৌধুরী বলেন, যাঁরা ট্রাইব্যুনাল ভাঙতে চাইছেন, এটা নতুন কোনো বিষয় নয়। মুক্তিযুদ্ধের সময়ই পাকিস্তান সরকার জাতিসংঘের মাধ্যমে যুদ্ধ বন্ধ করতে চেয়েছিল। এখনো একই ধরনের অপচেষ্টা চলছে।
শাহবাগের আন্দোলন নিয়ে বিএনপির বিবৃতি প্রসঙ্গে রাশেদ খান মেনন বলেন, এ বিবৃতি আন্দোলনকে বিভ্রান্ত করার অপকৌশল। বিএনপির উচিত যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গ ত্যাগ করা। তাদের অবস্থান স্পষ্ট করা। আন্দোলনে যুক্ত কয়েকজনের নাম নিয়ে ‘আমার দেশ’, ‘নয়াদিগন্ত’ পত্রিকা যেসব বিভ্রান্তকর খবর প্রচার করছে, তার বিরুদ্ধে সরকারকে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »