বার্তাবাংলা ডেস্ক »

এস এ চৌধুরী, মৌলভীবাজার :: মৌলভীবাজারে ধর্ষিত এক চা শ্রমিককের হাত পা বাধাবস্থায় উদ্বার করা হয়েছে ।রাতভর নির্যাতনের পর চা গাছের গোড়ায় ফেলে রাখে দুর্বৃত্তরা। গত ৮ ফেব্রুয়ারি জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার নন্দরানী চা বাগানে এ ঘটনাটি ঘটে। চা বাগান শ্রমিক সুমন তংলা (নির্যাতিতার চাচাতো ভাই) জানান, তার চাচাতো বোন (অম্বিকা তংলা-১২) নন্দরানী চা বাগানের অনিয়মিত শ্রমিক হিসেবে কাজ করত। ঘটনার দিন শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় সে(অম্বিকা তংলা-১২) নিখোঁজ হয়। সর্বত্র খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি। অবশেষে গত শনিবার বেলা ১ টায় পার্শ্ববর্তী হোসনাবাদ চা বাগানের ১০ নং প্লান্টেশন এলাকায় চা গাছের গোড়ায় হাত পা বাধা অজ্ঞান অবস্থা উদ্ধারকরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে প্রথমে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করা হয় এবং অবস্থা বেগতিক দেখে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্স কর্তৃপ বেলা ৩ টায় মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও এখনো জ্ঞান ফিরেনি ( শনিবার সন্ধ্যায় ) । নন্দরানী চা বাগান ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, কিশোরীর সু-চিকিৎসার জন্য তার আত্মীয়কে সাথে দিয়ে দ্রুত হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। কমলগঞ্জ থানার ওসি নীহার রঞ্জন নাথ জানান, এ ধরনের কোন ঘটনা তিনি জানেন না।খোঁজ নিয়ে দেখছেন বলে আরো বলেন, এ ঘটনায় মামলা হলে আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

আমি ফারজানা চৌধুরী তন্বী। লেখালিখি করি ফারজানা তন্বী নামে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করার পর আজ প্রায় পাঁচ বছর ধরে লেখালিখির সঙ্গেই আছি। বার্তাবাংলা’য় কাজ করছি সিনিয়র রিপোর্টার হিসেবে। আমার বিশেষ আগ্রহের ক্ষেত্র ফিচার, প্রযুক্তি আর লাইফস্টাইল। ভালো লাগে ভ্রমণ, বইপড়া, বাগান করা আর ইন্টারনেট নিয়ে পড়ে থাকা :)

মন্তব্য করুন »