বার্তাবাংলা ডেস্ক »

bartabanglaবার্তাবাংলা ডেস্ক ::যৌতুকের ঘটনাকে কেন্দ্র করে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার হিজলবাড়িয়া গ্রামে জামাই ও শ্বশুর পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে  জামাইসহ তার পক্ষের মুঞ্জিলা খাতুন (৪৫), সেলিম (২৭), উজ্জল হোসেন (২৪), লোকমান হোসেন (৫৫), ইলিয়াছ হোসেন (১৭) এবং শ্বশুর পক্ষের সাইফুল ইসলাম (২৭), কিবরিয়া হোসেন (২৮), চম্পা খাতুন (৩২),  আজগর হোসেন ওরফে খেড়– (৬০), হুমায়ন (৩৫), ফজিলা খাতুন (৫৪) ও মেহের নিগারের (৪০) অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

All Media Link

জামাই দেলওয়ার হোসেন জানান, প্রায় ৩ বছর আগে একই গ্রামের সাইফুল ইসলামের মেয়ে রিনার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই বিনা কারণে স্ত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে তার স্ত্রীকে ছাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এজন্য এক বছর আগে শ্বশুর তাকে ফাঁসাতে মিথ্যা হত্যা অপচেষ্টা মামলা করে।

তিনি জানান, সকালে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে শ্বশুর পক্ষের লোকজন তার লোকজনের উপর হামলা চালিয়ে আহত করে।

এদিকে শ্বশুর সাইফুল ইসলাম জানান, বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে মোটা অংকের যৌতুক দাবি করে আসছে জামাই দেলওয়ার হোসেন। কিছুদিন আগে জামাইকে একটি মোটরসাইকেল দেওয়া হয়েছে। এখন সে বাড়ি করার জন্য জমি দাবি করে আসছে।

তিনি অভিযোগ করেন,  জমি কিনে না দেওয়ায় তার মেয়েকে শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন চালাচ্ছিল জামাই। এর প্রতিবাদ করায় জামাই তার লোকজন নিয়ে হামলা চালায়।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »