বার্তাবাংলা ডেস্ক »

41974_tusবার্তাবাংলা ডেস্ক ::পূর্বাভাস অনুযায়ী ভয়াবহ তুষারঝড় আঘাত হেনেছে যুক্তরাষ্ট্রের উত্তরপূর্বাঞ্চলে। বরফের চাদরে ঢেকে গেছে পুরো এলাকা। বিস্তীর্ণ অঞ্চলে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ অচল হয়ে পড়েছে। বিদ্যুৎ যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়ায় লাখ লাখ মানুষ এখন অন্ধকারে নিমজ্জিত। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটের সাড়ে ৩ হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়। নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাতায়াতকারী ট্রেন সার্ভিসগুলোও বন্ধ ছিল। এমতাবস্থায় ৫টি অঙ্গরাজ্যের গভর্নর জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত বাতাসের গতিবেগ ছিল ৩৫ থেকে ৪০ মাইল। সন্ধ্যা নামতেই বাতাসের গতিবেগ বেড়ে ৬০ মাইল পর্যন্ত পৌঁছানোর কথা বলেছিলেন আবহাওয়াবিদরা। বহু এলাকায় যানবাহন চালানো বিপজ্জনক অবস্থায় মোড় নিয়েছে। ম্যাসাচুসেটসের গভর্নর ডেভাল প্যাট্রিক গতকাল বিকেল থেকে যে কোন গাড়ির ওপর সাময়িক ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করেছেন। এদিকে কানেকটিকাটের গভর্নর ড্যানেল ম্যালয় রাজ্যের মহাসড়কগুলো বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। শুধু জরুরি প্রয়োজনের যানবাহন সেখানে চলাচল করতে পারবে। হাজার হাজার মানুষ অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছেন। ম্যাসাচুসেটসে ২ লাখেরও বেশি বাড়িঘর, দোকান ও অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গতকাল বিদ্যুৎ ছিল না। রোড আইল্যান্ডে ১ লাখ ও কানেকটিকাটে ৩০ হাজার বাড়িঘর বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ছিল। আবহাওয়াবিদরা তাদের পূর্বাভাসে বলেছিলেন, নিউ ইয়র্ক সিটির পাশ দিয়ে বোস্টনসহ অন্যান্য রাজ্যে তুষারঝড়ে ২ ফুট উঁচু বরফ জমতে পারে। কোন কোন স্থানে ১ ফুট বরফ জমার কথা বলেছিলেন তারা। একই সঙ্গে কানেকটিকাট ও মেইন অঙ্গরাজ্যে ভারি তুষারপাতের আশঙ্কা করছেন তারা।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »