বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Sl20130207102239বার্তাবাংলা ডেস্ক ::নয় ম্যাচে সপ্তম জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে বিপিএলের শীর্ষ চারে থাকা প্রায় নিশ্চিত করেছে সিলেট। বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪ উইকেটে ১৯৭ রান করে রংপুর। জবাবে ১৯ ওভারে ৪ উইকেটেই ল্েয পৌঁছে যায় সিলেট। ল্য তাড়া করতে নেমে পল স্টারলিংয়ের সঙ্গে শিবনারায়ণ চন্দরপলের ৪৮ রানের উদ্বোধনী জুটি সিলেটকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেয়।
দ্বিতীয় উইকেটে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ৪৫ রানের আরেকটি চমৎকার জুটি দলকে উপহার দেন চন্দরপল। চলতি আসরে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমেই অর্ধশতকের দেখা পাওয়া চন্দরপল ফেরেন ৫১ রান করে। তার ২৯ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ২টি ছক্কা। এরপর নাজমুল দ্রুত বিদায় নিলেও মমিনুল হকের সঙ্গে মুশফিকের ৪৬ রানের আরেকটি ভালো জুটি সিলেটকে লড়াইয়ে রাখে। দলীয় ১৫৯ রানে মুশফিককে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে সিলেটকে বড় একটা ধাক্কা দেন রংপুরের অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক। মুশফিকের ৩১ বলে খেলা ৫৬ রানের ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ২টি ছক্কার মার।
মুশফিকের বিদায়ের পর মমিনুল ২০ বলে অপরাজিত ২৩ রান ও এল্টন চিগুম্বুরা ১৩ বলে ৩টি ছক্কার সাহায্যে ২৭ রানে অপরাজিত খেকে সিলেটকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান।
এর আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই জুনায়েদ সিদ্দিকের (৬) বিদায়ে রংপুরের শুরুটা ভালো হয়নি। ১৪ ওভার ২ বল স্থায়ী দ্বিতীয় উইকেটে ইমরুল কায়েসের সঙ্গে শামসুর রহমানের ১৪৫ রানের জুটি রংপুরকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেয়।
রংপুরকে দুশ’ রানের কাছাকাছি নিয়ে নিয়ে যাওয়ার কৃতিত্ব পঞ্চম অর্ধশতকে পৌঁছানো শামসুরের। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক শামসুর অপরাজিত থাকেন ৯৮ রানে। ৫০বলের ইনিংসে ছিল ৮টি ছক্কা ও ৪টি চারের মার।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »