বার্তাবাংলা ডেস্ক »

study in canadaবার্তাবাংলা রিপোর্ট :: কানাডার নোভাস্কোটিয়ায় অবস্থিত ডালহৌসি ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠার ইতিহাস বহু পুরনো। ১৮১৮ খ্রিস্টাব্দের দিকে গড়ে ওঠা এ প্রতিষ্ঠানটির নাম দেয়া হয় সে সময়ের গর্ভনর ডালহৌসির নামে। ডালহৌসি ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখন পর্যন্ত দাঁড়িয়ে আছে বিশ্বের অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে।

ক্যাম্পাস : ডালহৌসি ইউনিভার্সিটির মোট ক্যাম্পাস তিনটি। মূল ক্যাম্পাসটির অবস্থান নোভাস্কোটিয়ার হ্যালিফাক্স শহরে।

ফ্যাকাল্টি : ডালহৌসি ইউনিভার্সিটির মোট শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয় ছয়টি ফ্যাকাল্টির মাধ্যমে। এগুলো হলো সায়েন্স, আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস, ল, ম্যানেজমেন্ট, কম্পিউটার সায়েন্স এবং গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ। এর সঙ্গে নতুন করে যুক্ত হয়েছে মেডিসিন, ডেনটিসট্রি, হেলথ প্রোফেশনস। আরও আছে ইঞ্জিনিয়ারিং এবং আর্কিটেকটার ও প্যানিং।

All Media Link

আন্ডারগ্র্যাজুয়েট পর্যায়ে আবেদন : এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ক্ষেত্রে আমেরিকান হাইস্কুল কারিকুলাম অনুসরণ করা হয়। প্রার্থীর গড়ে ১২ পয়েন্ট অর্থাৎ ‘বি’ থাকতে হয়। স্কলাস্টিক অ্যাসেসমেন্ট টেস্ট বা স্যাট স্কোরও থাকতে হয়।

পড়াশোনার সুযোগ : বিশ্বের প্রায় একশ’ দশটি দেশের এক হাজার চারশ’ শিক্ষার্থী এ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত আছে। প্রথম বর্ষে পড়াকালেই পাওয়া যায় শিক্ষাবৃত্তি। সাধারণত মার্চের ১৫ তারিখের মধ্যে বৃত্তির জন্য আবেদন করতে হয়।

গ্র্যাজুয়েট পর্যায়ে আবেদন : গ্র্যাজুয়েট পর্যায়ে সাধারণত গবেষকরাই ভর্তি হন। এর আবেদনপত্রও পাওয়া যায় অনলাইনে। ইংরেজিতে পূরণ করতে হয় দরখাস্তটি। যারা এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চান তারা

www.dal.ca অ্যাড্রেসে ক্লিক করতে পারেন।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

আমি ফারজানা চৌধুরী তন্বী। লেখালিখি করি ফারজানা তন্বী নামে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করার পর আজ প্রায় পাঁচ বছর ধরে লেখালিখির সঙ্গেই আছি। বার্তাবাংলা’য় কাজ করছি সিনিয়র রিপোর্টার হিসেবে। আমার বিশেষ আগ্রহের ক্ষেত্র ফিচার, প্রযুক্তি আর লাইফস্টাইল। ভালো লাগে ভ্রমণ, বইপড়া, বাগান করা আর ইন্টারনেট নিয়ে পড়ে থাকা :)

মন্তব্য করুন »