বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Kurigram-sm0620130206032438বার্তাবাংলা ডেস্ক ::কুড়িগ্রাম শহরের কলেজমোড় এলাকায় স্বাধীনতার বিজয়স্তম্ভে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল চলাকালে সংঘর্ষের ঘটনায় সাংবাদিকসহ ৭ ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছে।

বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে আভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) আসমা আমিন সমর্থক ছাত্রলীগের একটি গ্রুপের সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক মো. জাফর আলী এমপির সমর্থক ছাত্রলীগ কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

All Media Link

আহতদের মধ্যে ছাত্রলীগ কর্মী আনিস (৩০), শান্ত (২৫) ও আপেল মাহমুদের (২০) মাথায় আঘাত লাগলে গুরুত্বর অবস্থায় তাদের কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতাল ও পপুলার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এছাড়া স্থানীয় বিটিভির ক্যামেরাম্যান নাজমুল হোসেন, এনটিভির ক্যামেরাম্যান সুজা, ইনডিপেন্ডেন্ট টিভির ক্যামেরাম্যান রবিউল এবং এটিএনবাংলার জেলা প্রতিনিধি ইউসুফ আলমগীর আহত হয়েছেন।

এর আগে বুধবার সকাল ১১টার দিকে কুড়িগ্রাম আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের সভাস্থল থেকে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান আলীকে চাপাতিসহ আটক করেছে পুলিশ।

এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান আলী আকস্মিক ভাবে কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাফর আলীকে চাপাতি (বিশেষ ধরনের দা) দিয়ে আক্রমণ করতে গেলে উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশ সোপর্দ করে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ কর্মীরা শাহজাহান আলীর ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি ভাঙচুর করে।

মো. জাফর আলী এমপি তার ওপর সন্ত্রাসী হামলার কথা স্বীকার করেছেন।

কুড়িগ্রাম সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ময়নুল ইসলাম জানান, সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনার আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান আলীকে থানা হাজতে রাখা হয়েছে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন »

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »